সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

সাংবাদিকদের র‌্যাব

শিশুকে ধর্ষণের পর ইট দিয়ে মাথা থেঁতলে হত্যা করে রিফাত

আপডেট : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০১:৫৫ এএম

দশ দিন আগে গাজীপুরের শরিফপুরের কাশবনে পাঁচ বছর বয়সী শিশুকে ধর্ষণের পর তার মাথা ইট দিয়ে থেঁতলে দিয়ে তাকে হত্যা করে ওই শিশুর বাবার খামারের কর্মচারী। ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে আগের রাতে টঙ্গীর বোর্ডবাজার এলাকা থেকে গ্রেপ্তারকৃত রিফাতকে জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া এ তথ্য গতকাল বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন র‌্যাব-২-এর অধিনায়ক সারোয়ার বিন কাশেম। গতকাল দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, গত ২৭ জানুয়ারি সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তার বাসার পাশে নানার বাসাতে গোসল করতে যায় আফান্নুম তাহি (৫)। পরে পাশের একটি কাশবন থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ঘটনার তদন্তে শিশুটির বাবার মুরগির খামারের কর্মচারী রিফাতের নাম বেরিয়ে আসে। বুধবার রাতে টঙ্গীর বোর্ডবাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। রিফাতকে জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে সারওয়ার বলেন, ‘নানার বাসা থেকে ফেরার পথে রাস্তায় রিফাতের সঙ্গে দেখা হয় তাহির। নানি কোথায় জানতে চাইলে তাহিকে তার নানির কাছে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে বাড়ির পাশে কাশবনে নিয়ে ধর্ষণ করে রিফাত। তাহি কান্নাকাটি করে সবাইকে বলে দেওয়ার কথা বললে রিফাত পাশে থাকা ইট দিয়ে মাথায় একের পর এক আঘাত করে তাহির মৃত্যু নিশ্চিত করে পালিয়ে যায়।’

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত