শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

মিরপুরে স্টার সিনেপ্লেক্সের নির্মাণকাজ শুরু আগামী সপ্তাহে

আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৮:০৩ পিএম

গেল বছর সারা দেশে সিনেপ্লেক্স নির্মাণের ঘোষণা দেয় স্টার সিনেপ্লেক্স। অন্যদের মতো ঘোষণাতেই থেমে না থেকে মাঠেও নামে স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ। রাজধানীর সীমান্ত সম্ভারে চালু করে স্টার সিনেপ্লেক্সের দ্বিতীয় শাখা। মহাখালীসহ আরও বেশ কিছু জায়গায় সিনেপ্লেক্স নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এদিকে ১০ ফেব্রুয়ারি প্রতিষ্ঠানটি ঘোষণা দেয় মিরপুরের সনি সিনেমা হল ভেঙে তারা স্টার সিনেপ্লেক্সের নতুন শাখা নির্মাণ করবে। ঘোষণার একদিন পরেই সনি সিনেমা হলের মালিক প্রযোজক মোহাম্মদ হোসেনের সঙ্গে চুক্তিতে স্বাক্ষরও করে।

১১ ফেব্রুয়ারি বিকেলে বসুন্ধরা স্টার সিনেপ্লেক্স ভবনে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। ১৫ বছর মেয়াদি চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান রুহেল ও সনি সিনেমা হলের মালিক প্রযোজক মোহাম্মদ হোসেন।

দেশ রূপান্তরকে স্টার সিনেপ্লেক্সের বিপণন কর্মকর্তা মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আগামী সপ্তাহ থেকেই মিরপুরের সনি সিনেমা হলের জায়গায় স্টার সিনেপ্লেক্সের নির্মাণকাজ শুরু হবে। সেখানে আমরা তিনটি হল নির্মাণ করব। আসন্ন কোরবানির ঈদেই চালু হবে সিনেপ্লেক্সটি। ফলে আগস্টের আগেই সব কাজ গুছিয়ে নিতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘মিরপুরবাসীর সুবিধার জন্যই আমরা এই উদ্যোগ নিয়েছি। অন্যান্য সিনেপ্লেক্সগুলোর মতোই সব ধরনের আধুনিক সুবিধা পাবেন দর্শকেরা।’

মিরপুরের নতুন এই সিনেপ্লেক্সে অত্যাধুনিক ডিজিটাল মেশিন, স্ক্রিন, দর্শকদের জন্য নানা সুবিধা থাকবে।

রাজধানীর মিরপুরের ঐতিহ্যবাহী ‘সনি সিনেমা’ হলটি যাত্রা শুরু করে ১৯৮৬ সালের ১৬ আগস্ট। ১২০০ সিটের এই হলটি এবার বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। আর সেই জায়গায় নির্মিত হবে স্টার সিনেপ্লেক্স। এদিকে সনি সিনেমা হলের মালিক চলচ্চিত্র পরিচালক প্রযোজক মোহাম্মদ হোসেন জানিয়েছেন এ মাসেই সনি সিনেমা হলে সিনেমা প্রদর্শন বন্ধ হয়ে যাবে। সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষকে কাজ করার সুযোগ দিতেই সিনেমা প্রদর্শন বন্ধ থাকবে। স্টার সিনেপ্লেক্স নির্মাণ করতে ছয় মাসের মতো সময় লাগবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে সনি সিনেমা হলের ভবনটিরও নাম পরিবর্তন হচ্ছে। এই ভবনের নতুন নাম হবে ‘সনি স্কয়ার’। এই ভবনে ফুডকোর্ট, পারলার, ব্যায়ামাগার, শপিং মল, ব্যাংক, এটিএম বুথ, শিশুদের খেলাঘর, স্কাই রেস্টুরেন্ট, বাটা, ইনফিনিটি, জেন্টল পার্ক, কেএফসি, পিৎজা হাটসহ দেশি বিদেশি নানা ব্রান্ডের দোকান থাকবে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত