মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ, বর ও কনের বাবাকে অর্থদণ্ড

আপডেট : ০১ মার্চ ২০১৯, ০৫:২৫ পিএম

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার কালিয়াহরিপুর ইউনিয়নের তেঁতুলিয়া পশ্চিমপাড়া গ্রামে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে একটি বাল্যবিবাহ বন্ধ করা হয়েছে। পাশাপাশি এ ঘটনায় কনের অভিভাবক ও বরকে ৪০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনিসুর রহমান পশ্চিমপাড়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে ও চুনিয়াহাটা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী রাজিয়া সুলতানার (১৪) সঙ্গে জারিলা গ্রামের আব্দুল খালেকের পুত্র মো. কাওছার আলীর (২৪) বাল্যবিবাহ বন্ধ করে এই অর্থদণ্ড দেন।

বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ ফোর্স সঙ্গে নিয়ে তিনি কনের বাড়ি তেঁতুলিয়া পশ্চিমপাড়া গ্রামে হাজির হন। এ সময় সেখানে নবম শ্রেণির ছাত্রী রাজিয়া ও কাওছার আলীর বিয়ের আয়োজন চলছিল। পুলিশ ও ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতি টের পেয়ে নিকাহ রেজিস্ট্রার কৌশলে পালিয়ে যায়।

কনে অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় তাৎক্ষণিক ভাবে সেখানেই ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে বর মো. কাওছারকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও কনের বাবা আব্দুর রাজ্জাককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ মাসের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

বর ও কনের বাবা নগদ অর্থ পরিশোধের মাধ্যমে মুক্তি পান। এরপর কনের বাবার কাছ থেকে মেয়ের ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত মেয়ের বিয়ে দেওয়া হবে না মর্মে মুচলেকা আদায় করা হয়।

এ অভিযানে আরও উপস্থিত ছিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অনিন্দ্য গুহ, সদর থানার এএসআই রশিদুল হাসান, পৌর ভূমি অফিসের ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

   
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত