শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

সাপের কামড়ে স্কুলছাত্রীর মৃত্যু, হাসপাতালে চিকিৎসা না পাওয়ার অভিযোগ

আপডেট : ০২ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৫৮ পিএম

কুষ্টিয়া দৌলতপুরে সাপের কামড়ে আহত সোনিয়া খাতুন (১৪) নামে সপ্তম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে। শনিবার রাত আড়াইটার দিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। নিহতের চিকিৎসা না পাওয়ার অভিযোগ তুলেছেন।

সোনিয়া উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ দাড়েরপাড়া গ্রামের বাসিন্দা জালাল উদ্দিনের মেয়ে এবং স্থানীয় ডিজিএম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মাত্র ৪০ দিন পূর্বে সোনিয়ার মা রোজিনা খাতুন হৃদ্‌রোগ জনিত কারণে মারা যান।

নিহতের বাবা জালাল উদ্দিন জানান, শুক্রবার রাতের খাবার খেয়ে নানির সঙ্গে ঘুমিয়ে ছিল সোনিয়া। ঘুমন্ত অবস্থায় মধ্যরাতে তাকে সাপে কামড় দেয়। যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকলে আমরা বুঝতে পারি তাকে সাপে কামড় দিয়েছে। পরে তাকে দ্রুত উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত দুইটার দিকে সোনিয়ার মৃত্যু হয়।

জালাল উদ্দিন জানান, ‘হাসপাতালে ভর্তির পরে প্রায় দেড় ঘণ্টা বেঁচে ছিল সোনিয়া। এ সময়ের মধ্যে তাকে কোনো এন্টিভেনাম দেয় নাই ডাক্তার।’

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিতে মুঠোফোনে জানতে চাইলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কিছুই জানেন না বলে জানান।

পুনরায় অনুরোধ করলে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক চিকিৎসক ডা. আশরাফুল আলম এবং তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. আব্দুল মোমেন একই কথা বলেন, ‘এ মুহূর্তে এ বিষয়ে কিছুই জানি না, খোঁজ নিয়ে বলতে পারব’

বিষয়টি নিয়ে কুষ্টিয়া সিভিল সার্জন ডা. এইচ এম আনোয়ারুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিধি মতে হাসপাতালে রোগী ভর্তি, চিকিৎসা ও মৃত্যু সংক্রান্ত বিষয় অবশ্যই ঘটনার সময়ই তাৎক্ষণিকভাবে আবাসিক মেডিকেল অফিসারের জানার কথা। তিনি কেন এমনটি বললেন তা আমার বোধগম্য নয়। আমি বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখছি।

দৌলতপুর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) শফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সংবাদ পেয়ে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল থেকে মৃত সোনিয়ার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ। সাপের কামড়েই তার মৃত্যু হয়েছে কি না তা ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলেই বোঝা যাবে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত