রোববার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

কোন আইনে সাজাপ্রাপ্ত হাজী সেলিম বিদেশ গেলেন, জানতে চান রিজভী

আপডেট : ০৪ মে ২০২২, ০২:২১ পিএম

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সাজাপ্রাপ্ত হাজী সেলিমের বিদেশ যাত্রার ঘটনায় প্রমাণিত হয়েছে ক্ষমতাসীনদের কাছে ‘আদালত অসহায়’।

বুধবার দুপুরে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘দুর্নীতির মামলায় হাজী সেলিম আত্মসমর্পণ না করেই দেশ ছেড়েছেন। নির্বিঘ্নে তার বিদেশ পাড়ি দেয়ার ঘটনায় এটা প্রমাণিত হয়েছে যে, ক্ষমতাসীন দলের নেতা-মন্ত্রীদের কাছে আদালত অসহায়।’

রিজভী বলেন, ‘র‌্যাব-পুলিশ যেভাবে বিরোধী দল-মতের মানুষের পেছনে লেগে আছে, দৃশ্যত আদালতের ভূমিকাও প্রায় একই ধরনের। সরকার দেশের আইন-আদালত-বিচার-প্রশাসন সবকিছু দলীয়করণের ঘনকালো আলখাল্লায় ঢেকে দিয়েছে।’

সাবেক প্রধানমন্ত্রী অসুস্থ খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোর বিষয়ে আইন মন্ত্রী আনিসুল হকের দেয়া ‘দণ্ডিত আসামির দেশের বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই’ বক্তব্য তুলে ধরে প্রশ্ন রেখে রিজভী বলেন, ‘হাজী সেলিমের সেই সুযোগ কীভাবে হলো’!

তিনি বলেন, ‘আইন যদি সবার জন্য সমান হয় তাহলে কোন আইনে সাজাপ্রাপ্ত হাজী সেলিম চিকিৎসার জন্য বিদেশ গেলেন? এখানে বেগম খালেদা জিয়ার জন্য এক আইন আর হাজী সেলিমের জন্য অন্য আইন কোন সংবিধানে, কোন গ্রন্থে আছে?’

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘আদিম বন্য শাসন চলছে দেশের প্রতিটি সেক্টরে। মুজিব কোটধারী আওয়ামী লীগার ও প্রধানমন্ত্রীর ছত্র ছায়াপ্রাপ্তরা দেশের সকল আইন কানুনের ঊর্ধ্বে। হীরক রানির দেশে তাদের জন্য সাত খুন মাফ।’

তিনি বলেন, ‘বিএনপির জন্য আদালতগুলো ক্যাঙারু কোটে পরিণত করা হয়েছে, বিচারালয়গুলো ক্ষমতাসীনদের ইচ্ছা পূরণের মেশিনে পরিণত হয়েছে। এটাই এখন শেখ হাসিনার তথাকথিত ন্যায় বিচারের নতুন মডেল।’

দুর্নীতির মামলায় ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত সাংসদ হাজী সেলিম চিকিৎসার জন্য ব্যাংক গিয়েছেন। সোমবার বিষয়টি গণমাধ্যমে প্রকাশ পায়। 

হাজী সেলিমের বিদেশ যাত্রা নিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের আইনজীবী খুরশীদ আলম ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করেন রিজভী।

ঈদের জামাতে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীদের গুলিবর্ষণের ঘটনায় কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার পাঁচথুবি ইউনিয়নের বিএনপি নেতা মোস্তাক মিয়া ভূঁইয়ার গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনার নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, হাবিব উন নবী খান সোহেল, কেন্দ্রীয় নেতা রফিকুল ইসলাম, আবদুস সালাম আজাদ, তারিকুল ইসলাম তেনজিং, আবদুস সাত্তার পাটোয়ারী, জাসাসের জাকির হোসেন রোকন, স্বেচ্ছাসেবক দলের ডা. জাহিদুল কবির প্রমুখ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত