রোববার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বেতন দিতে দেরি করায় মালিককে গলা কেটে খুন!

আপডেট : ০৮ জুলাই ২০২৪, ০৭:২৭ পিএম

কাজ করছেন কিন্তু সময়মতো বেতন পাচ্ছেন না। রাগ করে মালিকের কাছে বেতন চাইতে গিয়েছিলেন মুদি দোকানের কর্মচারী। বেতন দেওয়া নেওয়া নিয়ে মালিক এবং কর্মচারীর মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়। একপর্যায়ে ছুরি দিয়ে মালিকের গলা কেটে সেখান থেকে পালিয়ে যান কর্মচারী। ঘটনাটি ভারতের গুরুগ্রামের সোহনা এলাকার।

এনডিটিভি জানিয়েছে, গত সোমবার মারা যায় রাজীব ওঝা (৬২)। ২২ বছর বয়সী অভিযুক্তের নাম অর্জুন কুমার। খুনের অভিযোগে তিন দিনের জন্য পুলিশের হেফাজতে রয়েছেন অর্জুন।

পুলিশ জানিয়েছে, রাজস্থানের বাসিন্দা হলেও রাজীব পরিবার নিয়ে গুরুগ্রামে থাকেন। সোহনা এলাকায় একটি দোকানও রয়েছে তার। তিন মাস ধরে তার দোকানে কর্মচারী হিসাবে কাজ করছিলেন অর্জুন। উত্তরপ্রদেশের ফিরোজাবাদের বাসিন্দা তিনি।

বেতন নিয়ে সমস্যা দেখা দেওয়ায় রাজীবের সঙ্গে দেখা করতে যান অর্জুন। কিন্তু দেখা হওয়ার পর দুজনের ঝগড়া হাতাহাতির পর্যায়ে পৌঁছে যায়। রাগের বশে ছুরি দিয়ে রাজীবের গলা কেটে সেখান থেকে পালিয়ে যান অর্জুন। পরে তদন্তে নেমে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের পর তাকে আদালতে হাজির করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

 

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত