রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

দেশ ও জাতির কল্যাণে সশস্ত্র বাহিনীকে ভূমিকা রাখতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

আপডেট : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০১:৪৯ পিএম

দেশ ও জাতির কল্যাণে গণতন্ত্র এবং সাংবিধানিক ধারা অব্যাহত রাখতে সশস্ত্র বাহিনীকে ভূমিকা রাখতে হবে।- মিরপুর সেনানিবাসে বৃহস্পতিবার ডিএসসিএসসি ২০১৮-১৯ কোর্সের গ্র্যাজুয়েশন সমাপনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সামরিক বাহিনীর গ্র্যাজুয়েটদের সততা ও দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনেরও পরামর্শ দেন তিনি।

এ সময় রাজধানীর সঙ্গে অন্যান্য জেলার এবং সামগ্রিকভাবে পুরো দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি হয়েছে উল্লেখ করে এ কাজে সেনাবাহিনীর সহায়তার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারায় সশস্ত্র বাহিনী বিভিন্ন অবকাঠামো নির্মাণ এবং আইন শৃঙ্খলায় অবদান রেখেছে। এ ছাড়া বহির্বিশ্বে দায়িত্ব পালন করে সুনাম রাখছেন। বর্তমান বিশ্বে নিরাপত্তা ব্যবস্থার নতুন নতুন পরিবর্তনের ফলে সামরিক বাহিনীর দায়িত্বে এসেছে নতুন মাত্রা। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে আধুনিকায়ন করতে হবে।’

ক্রমবর্ধমান উন্নয়ন প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশকে এক সময় বিশ্ববাসী দুর্নীতি, দুর্বৃত্তায়ন ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের জন্য চিনত। তবে সে অবস্থা এখন আর নেই। আমাদের জিডিপি বেড়েছে। রাস্তাঘাটের উন্নতি হয়েছে। বিদ্যুৎ উৎপাদন বেড়েছে। আমরা স্যাটেলাইট যুগে প্রবেশ করেছি, পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের কাজ এগিয়ে চলেছে। মানুষের আয় এবং জীবনযাত্রার মানও বেড়েছে। সুনির্ধারিত পরিকল্পনা অনুযায়ী বাংলাদেশ উন্নত সমৃদ্ধ দেশের পথে এগিয়ে যাচ্ছে।’

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত