সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

অনিয়মের প্রতিবাদ করায় মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যার অভিযোগ

আপডেট : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৮:২৭ পিএম

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের ভূমি অধিগ্রহণে অর্থ বিতরণে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় পাবনায় মুক্তিযোদ্ধা মুস্তাফিজুর রহমান সেলিমকে হত্যা করা হয়েছে বলে মনে করছে পরিবার ও এলাকাবাসী।

বুধবার রাতে নিজ বাড়ির সামনে তাকে গুলি করে পালিয়ে যায় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা। হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা।

পুলিশ জানায়, বুধবার রাতে পাবনার ঈশ্বরদীর রূপপুর বিবিসি বাজার থেকে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন পাকশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা মুস্তাফিজুর রহমান সেলিম। এ সময় ওত পেতে থাকা দুর্বৃত্তরা তাকে তিন রাউন্ড গুলি করে মোটরসাইকেল যোগে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহতাবস্থায়  রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেবার পথে মারা যান তিনি।

এলাকাবাসী ও স্বজনদের দাবি প্রভাবশালী মহলের অপকর্মের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা সেলিম। সম্প্রতি রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের ভূমি অধিগ্রহণে স্থানীয় একটি চক্রের অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রতিবাদ করে তাদের রোষানলে পড়েন ।

নিহত সেলিমের মেয়ে সানজানা রহমান বলেন, আমার বাবা দীর্ঘদিন সক্রিয় রাজনীতি থেকে সরে এসেছেন। এর আগে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ায় তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হয়েছিল। আমরা বাবাকে বাড়ি থেকে দূরে কোথাও যেতে দিই না। কখনোই ভাবিনি বাড়ির দরজায় তাকে এভাবে গুলি করে হত্যা করা হবে।

ঈশ্বরদীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমান ফান্টু বলেন, মুক্তিযোদ্ধা সেলিম সব সময়ই অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার কণ্ঠ ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধে ছিলেন প্রথম সারির যোদ্ধা। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে জমি অধিগ্রহণের অর্থ বিতরণে, সকল অনিয়ম দুর্নীতির প্রতিবাদ তিনি করেছেন। এই এলাকায় প্রকল্পের অর্থ বিতরণে প্রতিবাদী কণ্ঠ রুদ্ধ করতেই লুটেরা সিন্ডিকেট এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।

এদিকে, মুক্তিযোদ্ধা হত্যার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। অবিলম্বে হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তারা।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, বাহাউদ্দিন ফারুকী দেশ রূপান্তরকে জানান, মুক্তিযোদ্ধা হত্যার ঘটনার পরেই গোয়েন্দা পুলিশ, পিবিআই, র‌্যাবসহ সকল ইউনিট মাঠে নেমেছে। আমরা সকল খুঁটিনাটি বিষয় খতিয়ে দেখছি। দোষীদের দ্রুততম সময়ে আইনের আওতায় আনা হবে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত