রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

প্রথম পর্যায়ের অভিযান শেষ

কর্ণফুলীর তীরে ৫ দিনে ১০ একর ভূমি উদ্ধার

আপডেট : ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০২:১১ এএম

কর্ণফুলী নদীর তীরে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের প্রথম পর্যায়ের অভিযান গতকাল শুক্রবার শেষ হয়েছে। গত সোমবার থেকে শুরু হওয়া এ অভিযানে ২৩০টি স্থাপনা উচ্ছেদ এবং ১০ একর ভূমি উদ্ধার করা হয়েছে।

অভিযানের পঞ্চম দিনে গতকাল সকাল থেকে আনু মাঝির ঘাট এলাকায় উচ্ছেদ কার্যক্রম শুরু করে জেলা প্রশাসন। নির্বাহী হাকিম তাহমিলুর রহমান ও তৌহিদুর রহমান এ কার্যক্রম তদারক করেন। এ সময় লবণ কারখানাসহ অন্তত ৬০টি স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। কর্ণফুলী নদীর সঙ্গে সংযুক্ত পাঁচটি খালের মুখ থেকে অবৈধ স্থাপনা অপসারণ করা হয়।

প্রথম পর্যায়ের অভিযানে উদ্ধার হওয়া জায়গায় আজ শনিবার থেকে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে আবর্জনা অপসারণ এবং জায়গা সংরক্ষণের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে জানিয়ে নির্বাহী হাকিম তাহমিলুর রহমান দেশ রূপান্তরকে বলেন, পাঁচ দিনের এ অভিযানে ১০ একর ভূমি উদ্ধার করা হয়েছে। শিগগির দ্বিতীয় পর্বের অভিযান শুরু করা হবে।

কর্ণফুলী নদীকে দখল ও দূষণমুক্ত করতে জনস্বার্থে দায়ের করা একটি রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নদীর দুই তীরে গড়ে ওঠা দুই সহস্রাধিক স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য প্রায় তিন বছর আগে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনকে নির্দেশ দেয় হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। অর্থ বরাদ্দসহ নানা জটিলতার কারণে দীর্ঘদিন ঝুলে থাকার পর গত ৪ ফেব্রুয়ারি সেখানে উচ্ছেদ কার্যক্রম শুরু করে জেলা প্রশাসন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত