শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

নোয়াখালীতে নবম শ্রেণির দুই ছাত্রীকে যৌন হয়রানি, প্রধান শিক্ষককে অব্যাহতি

আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৯:২৪ পিএম

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন একাডেমিতে নবম শ্রেণির দুই ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সহিদ উল্যার বিরুদ্ধে।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে সিনিয়র শিক্ষক তৌহিদ উল্যাকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে ৭ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন একাডেমির নবম শ্রেণির দুই ছাত্রী বিদ্যালয়ের সভাপতি বরাবর লিখিত অভিযোগ জানায় যে, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বিভিন্ন সময় ক্লাসে বিভিন্ন উত্তেজনামূলক কথা বলত এবং বিভিন্ন অজুহাতে বিভিন্ন সময় তাদের শিক্ষক বোডিং এ ডেকে নিয়ে উত্তেজনাকর কথা বলত। শরীরের আপত্তির স্থানে হাত দিত। মেয়েরা আপত্তি করলে তাদের বিভিন্ন ভাবে হুমকি দেওয়া হতো।

স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম জানান, এ ব্যাপারে দুই শিক্ষার্থী তার বরাবরে আবেদন করলে তিনি ৭ ফেব্রুয়ারি ম্যানেজিং কমিটির সভার বিষয়টি তদন্ত করে সাত দিনের মধ্যে রিপোর্ট দেওয়ার জন্য ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মাইন উদ্দিন ভূঞাকে সভাপতি করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। প্রধান শিক্ষক সহিদ উল্যাকে অব্যাহতি দিয়ে সিনিয়র শিক্ষক তৌহিদুল ইসলাম কে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষিকা তাসলিমা আক্তার জানান, দুই ছাত্রী স্কুলে সকল শিক্ষকের সামনে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেছে।

অভিযুক্ত শিক্ষক সহিদ উল্যার সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে বাড়িতে গিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি। তার ব্যবহৃত মোবাইল নম্বরটি বন্ধ রয়েছে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত