সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

জ্বালানি খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়া

আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৯:৩১ পিএম

বাংলাদেশের জ্বালানি খাতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মাঝারি প্রতিষ্ঠানগুলো বিনিয়োগে আগ্রহী হয়ে উঠেছে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু। তবে এ ক্ষেত্রে রাশিয়াও পিছিয়ে নেই বলে জানিয়েছেন তিনি।

রোববার রাজধানীর বিদ্যুৎ ভবনে ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলারের নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্রের একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রতিমন্ত্রী। আলোচনা শেষে নসরুল হামিদ বলেন, বাংলাদেশের স্থল এবং জলভাগের গ্যাস অনুসন্ধানের জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিড লেভেল (মাঝারি) প্রতিষ্ঠানগুলো বেশ আগ্রহ দেখাচ্ছে। আমরা এ বিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেব। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও রাশিয়ার গ্যাজপ্রম গ্যাস কূপ খননে নতুন করে আগ্রহ দেখাচ্ছে।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রায় সহযোগী হতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। বাংলাদেশের বর্তমান অর্থনীতিকে ডিজিটাল অর্থনীতি বলে আখ্যা দিয়ে এ কূটনীতিক বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ইতিমধ্যে এ দেশের এলএনজি খাতে যুক্ত হয়েছে। মহেশখালীতে জেনারেল ইলেকট্রিক (জিই) ৩ হাজার ৬০০ মেগাওয়াটের এলএনজি ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ করছে।  আমরা দ্রুত এ দেশের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে আরও বেশি বিনিয়োগ করতে চাই।

৮ সদস্যের ওই প্রতিনিধি দলে ছিলেন ঢাকা সফররত দক্ষিণ এবং মধ্য এশিয়া বিষয়ক মার্কিন উপসহকারী সচিব থমাস ভাজদা। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, শ্রমিক নিরাপত্তায় বাংলাদেশের বেশ অগ্রগতি হয়েছে। এ দেশের পোশাক শিল্পের মর্যাদা বিশ্বজুড়ে। দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশ হিসেবে আমরা বাংলাদেশের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বিনিয়োগে বেশ আগ্রহী।

এক প্রশ্নের জবাবে নসরুল হামিদ বিপু জানান, দেশের স্থলভাগে ১০৮টি কূপ খননের জন্য নতুন করে তৎপরতা শুরু করেছে সরকার। এ জন্য বিদেশি অনুসন্ধান কোম্পানিগুলো আমাদের দেশে বিনিয়োগে আগ্রহ দেখাচ্ছে। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত ছাড়াও সাইবার নিরাপত্তা, পোশাক শিল্প, আঞ্চলিক উপ আঞ্চলিক কানেকটিভিটি নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী।

 

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত