সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

শিক্ষামন্ত্রীর আশ্বাসে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলন শিথিল

আপডেট : ০২ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৫২ পিএম

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির আশ্বাসে শনিবার দুপুরে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আন্দোলন শিথিল করেছে। সেই সঙ্গে তারা প্রশাসনিক ভবনের অবরোধ তুলে নিয়ে গেটের তালা খুলে দিয়েছে। ফলে অবরুদ্ধ উপাচার্যসহ অন্যরা টানা দুদিন পর মুক্ত হয়ে বাইরে বের হয়ে এসেছেন।

শনিবার সকাল ৮টার দিকে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি সরাসরি আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলেন।

এ সময় মন্ত্রী তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেলেই এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা ৪৮ ঘণ্টার জন্য তাদের এই আন্দোলন শিথিল করেন।

৩০ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা প্রশাসনিক ভবনের গেটে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্যসহ অন্যদের অবরুদ্ধ করে অবস্থান ধর্মঘট কর্মসূচি শুরু করে।

তবে আগামী ২দিনের মধ্যে তদন্ত শেষ করে শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিনকে স্থায়ী ভাবে বরখাস্ত করা না হলে তারা আবারও আন্দোলন শুরু করবে বলে ঘোষণা দিয়েছে।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মুখপাত্র একেএম নাজমুল হোসাইন শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এক প্রেস ব্রিফিং এর মাধ্যমে এ ঘোষণা দেয়।

অবরোধ তুলে নেওয়ার পর দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য দফায় দফায় বৈঠক করেন। বৈঠকে বিষয়টি সমাধানে নানা পরিকল্পনা হতে নেওয়া হয়। সেই সঙ্গে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা আন্দোলনের সময় একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবনের বেশ কয়েকটি সিসি ক্যামেরা ভাঙচুর ও ক্ষতি সাধনের বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

এ বিষয়ে তদন্ত কমিটির প্রধান রবীন্দ্র অধ্যয়ন বিভাগের প্রক্টর লায়লা ফেরদৌস হিমেল বলেন, আমরা তদন্তের স্বার্থে নির্যাতিত শিক্ষার্থীদের কাছে ওই দিনের ঘটনার লিখিত বর্ণনা চেয়েছি। সেই সঙ্গে শিক্ষিকা ফারহানাকেও আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দিয়ে তাকে তার বক্তব্য পেশ করার সুযোগ দিয়েছি। আশা করি নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠুভাবে এ তদন্তকাজ সম্পন্ন হবে।

এ বিষয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য ও ট্রেজারার আব্দুল বাতেন শনিবার দুপুরে প্রশাসনিক ভবনের সেমিনার কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, আমরা নিয়মের মধ্যে দিয়ে এগোচ্ছি। আমাদের নিয়মতান্ত্রিক প্রক্রিয়া শেষ হলেই আমরা শিক্ষিকা ফারহানার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেব।

গত ২৬ সেপ্টেম্বর সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে অবস্থিত রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ ছাত্রের মাথার চুল কাঁচি দিয়ে কেটে দেয় রবির সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগের শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন। এ ঘটনায় নাজমুল হাসান তুহিন নামের এক ছাত্র ঘুমের ওষুধ সেবন করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে শিক্ষার্থীরা টানা দুদিন ওই শিক্ষিকার অপসারণের দাবিতে আন্দোলনের পর গত বৃহস্পতিবার রাতে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হয়। কিন্তু তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তার সহকর্মী একাধিক শিক্ষকের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তারাও তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কথা বলতে রাজি হননি।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত