শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

পরীক্ষায় পাস না করলে পেছাবে বিয়ে, হবু স্ত্রীর স্কুলে আগুন দিল যুবক

আপডেট : ২৮ আগস্ট ২০২২, ০৬:১০ পিএম

হবু স্ত্রী পরীক্ষায় ফেল করলে বিয়ে পিছিয়ে যাবে, এমন শঙ্কা থেকে বাগদত্তার স্কুলে আগুন ধরিয়ে দিয়েছেন মিসরের এক যুবক। মিসরের ঘারবিয়া গভর্নরেট এলাকায় ঘটেছে এই অদ্ভুত ঘটনা। স্কুলে আগুন দেয়া ওই যুবককে কায়রোর মেনোফিয়া প্রদেশ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

অভিযুক্ত যুবকের বয়স ২১ বছর। গ্রেপ্তারের পর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। এ ঘটনার তদন্ত চলছে। এ অগ্নিকাণ্ডে কেউ হতাহত হননি বলে জানিয়েছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারের পর স্কুলে আগুন লাগানোর কথা স্বীকার করে ওই যুবক জানান, চলতি বছরের পরীক্ষায় তার বাগদত্তা ফেল করবেন বলে তিনি আশঙ্কা করছিলেন। আর পরীক্ষায় ফেল করলে তাদের বিয়েও পিছিয়ে যাওয়ার শঙ্কা ছিল। পরীক্ষায় পাস না করলে তাদের বিয়ে পিছিয়ে যাবে, আর এ জন্য আরও এক বছর অপেক্ষা করতে হবে তাকে। এ শঙ্কা থেকেই হবু বউয়ের স্কুলে আগুন ধরিয়ে দেয়ার কথা জানান ওই যুবক।

স্থানীয় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ওই স্কুলের আগুন দ্রুত নেভাতে সক্ষম হলেও এতে স্কুলের অধ্যক্ষের কার্যালয় ও কেন্দ্রীয় প্রশাসনিক ভবনের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ছাড়া আগুনে পুড়ে গেছে স্কুলটির কিছু শিক্ষার্থীর রেকর্ড।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, স্কুলের কন্ট্রোল রুমে আগুন দেয়ার পর ওই যুবক পালিয়ে গিয়ে তার গ্রামে আশ্রয় নেন। তবে ঘটনাস্থলে থাকা কিছু লোক তাকে চিনতে পেরে স্থানীয় কর্তৃপক্ষকে তার গ্রামের ঠিকানা জানান এবং চেহারার বিবরণও দেন।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, যথাযথ আদালতকে পরিস্থিতি সম্পর্কে অবহিত না করা পর্যন্ত ওই যুবককে হেফাজতে রাখা হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

 

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত