রোববার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

রাজউকের ‘কোটিপতি কর্মচারীদের’ বিষয়ে তদন্তের নির্দেশ

আপডেট : ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০২:৫২ এএম

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ ওঠায় রাজধানী উন্নয়ন কর্র্তৃপক্ষের (রাজউক) কয়েকজন কর্মচারীর বিরুদ্ধে অনুসন্ধানের নির্দেশ দিয়েছে উচ্চ আদালত। আগামী ৫ এপ্রিলের মধ্যে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ও রাজউককে এ বিষয়ে প্রতিবেদন দিতে বলেছে হাইকোর্ট। গতকাল মঙ্গলবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেয়।

এর আগে গতকাল একটি জাতীয় দৈনিকে ‘রাজউক চেরাগে বাড়ি গাড়ি প্লট দোকান’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, রাজউকের উচ্চমান সহকারী, নিম্নমান সহকারী ও বেঞ্চ সহকারীদের তৃতীয় কিংবা চতুর্থ শ্রেণির কয়েকজন ২০-৩০ হাজার টাকা মাসিক বেতনের কর্মচারী হলেও রাজধানীতে তাদের অনেকের রয়েছে এক বা একাধিক বহুতল বাড়ি, আধুনিক গাড়ি। অনেকের আছে প্লট, ফ্ল্যাট ও দোকানপাট। অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে কয়েকজনের বিরুদ্ধে দুদক মামলা করলেও তদন্তের গতি ধীর।

ওই প্রতিবেদনটি আমলে নিয়ে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে রুলসহ আদেশ দেয় হাইকোর্ট। রুলে রাজউকের ওই কর্মচারীদের বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়েছে হাইকোর্ট। চার সপ্তাহের মধ্যে রাজউক, দুদক, এনবিআরসহ সংশ্লিষ্ট বিবাদীদের রুলের জবাব দিতে বলেছে হাইকোর্ট। আদালতে দুদকের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান।

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক। তিনি দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘রাজউকের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের এমন অস্বাভাবিক সম্পদের বিষয়ে হাইকোর্ট অনুসন্ধান করে প্রতিবেদন দিতে বলেছেন।’

   
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত