বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

গরমে দিশেহারা মানুষ, ৪৩ বছরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা কলাপাড়ায়

আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:১৮ পিএম

গরমের তীব্রতা বেড়েই চলছে পটুয়াখালীতে। গতকাল ৪৩ বছরের ইতিহাসের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ও দেশের সর্বোচ্চ ৪০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করেছে আবহাওয়া অফিস। গরমে দিশেহারা সাধারণ মানুষ। চিকিৎসকরা বলছেন, কাজ ছাড়া বাড়ির বাইরে বের না হতে। আবহাওয়া অফিস বলছে, শিগগিরই বৃষ্টির কোনো সম্ভাবনা নেই।

গত কয়েকদিন ধরে পটুয়াখালীতে বেড়েই চলছে গরমের তীব্রতা। ভ্যাপসা গরমে দিশেহারা সাধারণ মানুষ। ব্যাহত হচ্ছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। প্রচণ্ড খরতাপে মাঠ-ঘাট ফেটে চৌচির হয়ে গেছে। সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছে নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া মানুষ। তপ্ত রোদে মৌসুমি সবজি চাষিরা রয়েছেন বড় দুশ্চিন্তায়।

এদিকে কুয়াকাটায় আগত পর্যটকদের মাঝে লক্ষ করা গেছে বিরক্তির ছাপ। একটু স্বস্তির আশায় অনেকেই ছুটছেন সমুদ্র, নদীর পাড়, গাছতলা কিংবা ডাব এবং শরতের দোকানে।

গরমে হাসপাতাগুলোতে বেড়েছে রোগীর সংখ্যা।

পটুয়াখালী সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. ভূপেন চন্দ্র মন্ডল বলেন, পটুয়াখালীতে গরমের তীব্রতা বেড়েই চলছে। এসময় হিটস্ট্রোক বেশি হয়ে থাকে। তাই এসময় প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না। তরল জিনিস বেশি খেতে হবে। খারাপ লাগলে সাথে সাথে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে।

পটুয়াখালী আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক মো. রাহাত হোসেন বলেন, গতকাল কলাপাড়ায় দেশের সর্বোচ্চ ৪০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। উপজেলার গত ৪৩ বছরের ইতিহাসের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। শিগগিরই বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। এমেন আবহাওয়া আরও কদিন স্থায়ী হতে পারে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত