সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

গরমে নিঃশ্বাস নিতেই কষ্ট হচ্ছে ফিলিপাইনিদের

আপডেট : ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৪৪ পিএম

ফিলিপাইনে তীব্র তাপদাহে সবকিছু ঝলসে যাচ্ছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কিছু এলাকার স্কুল বন্ধ রাখতে বাধ্য হয়েছে কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও লোকজনকে বাইরে থাকার বিষয় সতর্কতা জারি করা হয়েছে বুধবার (২৪ এপ্রিল)। রাজধানী ম্যানিলার দক্ষিণে ক্যাভিট প্রদেশের একটি সমুদ্র তীরবর্তী রিসোর্টে কাজ করেন এরলিন তুমারন (৬০)।

তিনি বলেন, এত গরম যে আপনি নিঃশ্বাস নিতে পারবেন না। এটা আশ্চর্যজনক আমাদের পুলগুলো এখনো খালি। আপনি আশা করতে পারেন মানুষ এসে সাঁতার কাটবে। কিন্তু হয়তো গরমের কারণে বাড়ির বাইরে যেতে নারাজ। রিসোর্টটিতে গতকাল মঙ্গলবার তাপমাত্রা ৪৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল।

মার্চ, এপ্রিল ও মে সাধারণত ফিলিপাইন দ্বীপপুঞ্জের সবচেয়ে উষ্ণ ও শুষ্কতম মাস। তবে এ বছর এল নিনোর আবহাওয়ার প্রভাবে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে।

বুধবার রাজ্যের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে অন্তত ৩০টি শহর ও পৌরসভায় তাপমাত্রা ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা তার বেশি ‘বিপদজ্জনক’ পর্যায়ে পৌঁছবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। রাজ্যের আবহাওয়া পূর্বাভাসের প্রধান জলবায়ু বিশেষজ্ঞ আনা সোলিস বলেছেন, আগামী দিনগুলোয় তাপমাত্রা আরো তীব্র হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

আগামী দিনগুলোয় তাপমাত্রা আরো তীব্র হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সোলিস বলছেন, আমাদের বাইরে সময় কাটানো সীমিত করতে হবে। প্রচুর পানি পান করতে হবে। বেরোবার সময় ছাতা ও টুপি ব্যবহার করতে হবে। এল নিনোর কারণে ‘চরম তাপ’ দেশের বিভিন্ন অংশকে প্রভাবিত করছে। দেশটির প্রায় অর্ধেক প্রদেশ আনুষ্ঠানিকভাবে খরায় রয়েছে।

অ্যাপাররি উত্তর পৌরসভায় মঙ্গলবার তাপমাত্রা ৪৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছায়, যা দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত