মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ফেনীতে রিসাইক্লিং বিজনেস ইউনিটের উদ্বোধন

আপডেট : ১০ জুন ২০২৪, ০৯:৫৪ পিএম

বাংলাদেশ পেট্রোকেমিক্যাল কোম্পানি লিমিটেড (বিপিসিএল) আজ ফেনী রিসাইক্লিং বিজনেস ইউনিট (আরবিইউ) এর উদ্বোধন করেছে। এতে উপস্থিত ছিলেন ইউনাইটেড নেশনস অফিস ফর প্রজেক্ট সার্ভিসেস (ইউএনওপিএস) এর প্রজেক্ট ম্যানেজার ওবায়দুল ইসলাম, বিপিসিএল-এর সিইও ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক খাদেম মাহমুদ ইউসুফ, এবং সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্ট ইনোভেশন অ্যান্ড প্র্যাকটিসেস (সিডিআইপি) এর সহকারী মহাব্যবস্থাপক আবু সালেহ নুর মোহাম্মদ।

ফেনীর দাগনভূঁইয়াতে অনুষ্ঠিত এই অনুষ্ঠানটি ছিল ‘বাংলাদেশে রিসাইক্লিং বিজনেস ইউনিট গঠনের মাধ্যমে প্লাস্টিক রিসাইক্লিং ভ্যালু চেইনের আনুষ্ঠানিকীকরণ’ প্রকল্পের অংশ। বিস্তৃত প্লাস্টিক ফ্রি রিভারস অ্যান্ড সিস ফর সাউথ এশিয়া (পিএলইএএসই) বা ‘প্লিজ’ প্রকল্পেরও একটি অংশ।

প্লিজ প্রকল্পটি, দক্ষিণ এশিয়া কো-অপারেটিভ এনভায়রনমেন্ট প্রোগ্রাম (সিডিআইপি) ইউএনওপিএস এবং বিশ্বব্যাংক এর সহযোহীতায় বিপিসিএল দ্বারা বাস্তবায়িত হবে। 

এই উদ্যোগের ফলে ফেনী অঞ্চলের পুনর্ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিক বর্জ্য পরিবহন, সংরক্ষণ এবং প্রক্রিয়াকরণের মাধ্যমে টেকসই সার্কুলার ইকনমি নিশ্চিত হবে। আমাদের সমুদ্রে প্রবেশ করা প্লাস্টিক বর্জ্যের পরিমাণ কমিয়ে, প্রকল্পটি টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনার অনুশীলন প্রচার করে যা সামুদ্রিক বাস্তুতন্ত্র এবং সম্প্রদায়ের স্বাস্থ্য রক্ষা করে।

বিপিসিএলের সিইও ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক খাদেম মাহমুদ ইউসুফ বলেন, প্রকল্পটি টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন এবং একটি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন, সবুজ বাংলাদেশ গড়াই আমাদের লক্ষ্য।

ফরমালাইজেশন অব প্লাস্টিক রিসাইক্লিং ভ্যালু চেইন বাই ফরমিং রিসাইক্লিং বিজনেস ইউনিটস ইন বাংলাদেশ প্রকল্পের প্রাথমিক লক্ষ্য হল সারা বাংলাদেশে সাতটি রিসাইক্লিং বিজনেস ইউনিট (আরবিইউ) প্রতিষ্ঠা করা যেখানে প্লাস্টিক বর্জ্য পরিবহন, সংরক্ষণ এবং প্রক্রিয়াকরণের মাধ্যমে রিসাইক্লিং এর জন্য প্রস্তুত করা। এছাড়া সমুদ্রে প্রবাহিত প্লাস্টিক বর্জ্য হ্রাস করা, সামুদ্রিক বাস্তুতন্ত্র এবং সম্প্রদায়ের স্বাস্থ্য রক্ষার জন্য টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করা।

বাংলাদেশে বর্তমানে মাত্র ৩০% প্লাস্টিক বর্জ্য পুনর্ব্যবহার করা হচ্ছে, ফেনী রিসাইক্লিং হাব এই সমস্যাটি মোকাবিলা এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যসমূহকে সমর্থন করার জন্যি এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। ফেনী পৌরসভা প্রতিদিন ৭০-৮০ টন বর্জ্য উৎপন্ন করে, যা প্রায়শই অপরিকল্পিত নগরায়ন এর কারণে সঠিক ব্যবস্থাপনা করা বেশ কঠিন হয়ে পড়েছে । ফেনী আরবিইউ’এর লক্ষ্য দৈনিক ৩ টন বর্জ্য প্রক্রিয়াকরণ করা, উল্লেখযোগ্যভাবে প্লাস্টিক দূষণ হ্রাস করা এবং এলাকার নারী কর্মীদের এসব কাজে এমনভাবে নিযুক্ত করা যেন তাদের সামাজিক অবস্থার উন্নতি হয়।

ফেনী আরবিইউ’তে দুটি বেল মেশিন এবং একটি পিইটি বোতল কোল্ড ওয়াশিং সিস্টেম রয়েছে যার ক্ষমতা প্রতি ঘন্টায় ৫০০ কেজি, দক্ষ প্লাস্টিক প্রক্রিয়াকরণ নিশ্চিত করে। ‘প্লিজ’ প্রকল্পটি একটি পরিষ্কার পরিবেশের জন্য প্রচেষ্টা করে এবং স্থানীয়দের জন্য কাজের সুযোগ তৈরি করে।

আরবিইউ স্থাপনার মাধ্যমে ২০২৫ সালের মধ্যে ৫০% প্লাস্টিক পুনর্ব্যবহারযোগ্য হার অর্জনে অবদান রাখবে। ফেনী আরবিইউ ২৫-৩০ জনের জন্য কর্মব্যবস্থা সৃষ্টি করবে এবং এই প্রক্রিয়ার জন ৫০ জন বর্জ্য বাছাইকারীকে নিযুক্ত করবে। কর্মক্ষেত্রে নারীদের ক্ষমতায়ন ও প্রশিক্ষণের ওপর জোর দেওয়া হবে। ফেনী আরবিইউ একটি টেকসই ভবিষ্যতের জন্য অঙ্গীকারবদ্ধ।

   
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত