বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

আফগানদের অজিবধের আখ্যান: ২০২২ এ শুরু, ২০২৪ এ শেষ

আপডেট : ২৩ জুন ২০২৪, ১১:০৩ এএম

আজ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২১ রানের যে ঐতিহাসিক জয় পেয়েছে আফগানিস্তান তার শেকড় গাথা আজ থেকে দুই বছর আগে। ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। তার পরের বছর ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপেও অস্ট্রেলিয়ার হারিয়ে দিতে বসেছিল আফগানরা। সেবারও তারা ব্যর্থ হয় গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের বীরত্বের কাছে।

২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথমবার অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর সুযোগ তৈরি হয়েছিল আফগানিস্তানের সামনে। অ্যাডিলেডের ওই ম্যাচেও গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের অপরাজিত ফিফটিতে ১৬৮ রান করেছিল অস্ট্রেলিয়া। সমানে সমান টক্কর দিয়ে এগোচ্ছিল আফগানিস্তান।

শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল ২২ রানের। মার্কাস স্টয়নিসের ওই ওভার থেকে রশিদ খান তুলেছিলেন ১৭ রান। ৩৯ রানে রান আউট হওয়া গুলবাদিন নাইব ও ২৩ বলে ৪৮ রানে অপরাজিত থাকা রশিদ খান ৪ রানে হারের কষ্ট নিয়ে সেবার মাঠ ছেড়েছিলেন।

২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপে ইব্রাহিম জাদরানের অপরাজিত ১২৯ রানের ইনিংসের সুবাদে অস্ট্রেলিয়াকে ২৯২ রানের লক্ষ্য দিয়েছিল আফগানিস্তান। জবাবে ৯১ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে নির্ঘাত হারের সামনে দাঁড়িয়ে ছিল অজিরা।

ফিনিক্স পাখির মতো ওই ছাই থেকেই জ্বলে উঠে অজিদের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিয়ানসহ একগাদা রেকর্ড গড়ে আফগানদের হৃদয়ে দাগা দিয়েছিলেন ম্যাক্সওয়েল। তার মহাকাব্যিক ইনিংসে শেষ পর্যন্ত ৩ উইকেটে ম্যাচ জেতে অস্ট্রেলিয়া।

এ সকল ইতিহাস সামনে রেখেই আজ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নেমেছিলেন রশিদ-নাইবরা। আর পুরনো পথে হাঁটেননি। এবার অবশেষে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে পূর্ণ করেছেন মনোবাঞ্ছা। ম্যাচশেষে আফগান অধিনায়ক রশিদ খান বলেন, ‘এটা আমাদের জন্য অনেক বড় জয়। অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর অনুভুতি দারুণ। ২০২৩ ও ২০২২ বিশ্বকাপে আমরা সে সুযোগ হারিয়েছিলাম। সবমিলিয়ে সবার অবদানে এসেছে এ জয়। আমাদের জন্য এটা মাত্র শুরু।’

২০২২ এ শুরু হয়েছিল যে আফগান ট্র্যাজিক গল্পের তার হাসিমাখা সমাপ্তি হলো আজ ২১ রানের এ অজিবধের মধ্য দিয়ে।

 

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত