সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

পরীমণির সঙ্গে রাত্রিযাপনই কাল হলো এডিসি সাকলায়েনের

আপডেট : ২৫ জুন ২০২৪, ০৪:২৫ পিএম

অভিনেত্রী পরীমণির সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের জেরে চাকরি হারাচ্ছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোলাম সাকলায়েন। গত ১৩ জুন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের শৃঙ্খলা-২ শাখা থেকে উপসচিব রোকেয়া পারভিন জুঁই স্বাক্ষরিত এক আদেশে তাকে বাধ্যতামূলক অবসর প্রদান করা হয়।

আদেশে বলা হয়, ঢাকায় কর্মকালে নায়িকা পরীমণির সঙ্গে ঘটনাক্রমে দেখা হয় এবং যোগাযোগ হয়। এরই ধারাবাহিকতায় পরীমণির বাসায় নিয়মিত রাত্রিযাপন করতে শুরু করেন। তাঁর ফোনের সিডিআর বিশ্লেষণে দেখা যায় ২০২১ সালের ৭ জুলাই থেকে সে বছরের ৪ আগস্ট পর্যন্ত বিভিন্ন সময় দিনে এবং রাতে পরীমণির বাসায় অবস্থান করেছেন। 

এতে আরও বলা হয়, পরীমণির সঙ্গে সাকলায়েনের ফেসবুক মেসেঞ্জারের কথোপকথন সাধারণ পরিচিতি বা পেশাগত প্রয়োজনে স্থাপিত কোন সম্পর্কের নয় বরং অনৈতিক প্রেমের সম্পর্ক। 

রাজারবাগ মধুমতি পুলিশ অফিসার্স কোয়ার্টার্সে পরীমণির যাতায়াতের সিসিটিভি ফুটেজ রয়েছে। সাকলায়েনের স্ত্রী না থাকা অবস্থায় পরীমণি তার (সাকলায়েন) রাজারবাগের সরকারি বাসায় যান। সেখানে প্রায় ১৭ ঘণ্টা অবস্থান করে ২ আগস্ট (২০২১) রাত দেড়টায় বাসা থেকে বের হন পরীমণি। 

সাকলায়েনের সঙ্গে পরীমণির সম্পর্কের বিষয়টি গণমাধ্যমে প্রচারিত হয়। একজন বিবাহিত ও এক সন্তানের জনক হওয়া স্বত্বেও পরীমণির সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক স্থাপন, পরীমণির সঙ্গে জন্মদিন উদযাপন এবং নিজের সরকারি  বাসভবনে নিজ স্ত্রীর অবর্তমানে সময় কাটানোর মতো ঘটনা প্রচারিত হওয়া সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে।

সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ২০১৮ ঈর ৩(খ) বিধি অনুযায়ী ‘অসদাচরণ’ এর অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় একই বিধিমালার বিধি ৪ এর উপ-বিধি ৩(খ) বিধি মোতাবেক ‘গুরুদণ্ড’ হিসেবে ‘চাকরি থেকে বাধ্যতামূলক’ অবসর প্রদানের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

প্রসঙ্গত, আশুলিয়ায় বোট ক্লাবের উদ্যোক্তাদের একজন ব্যবসায়ী নাসির ইউ মাহমুদের বিরুদ্ধে চিত্রনায়িকা পরী মনি ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে মামলা করেন। ওই মামলার তদন্তের তদারক কর্মকর্তা ছিলেন গোলাম সাকলায়েন। মামলার তদন্ত করতে গিয়ে পরী মনির সঙ্গে গোলাম সাকলায়েনের সখ্য তৈরি হয় বলে গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে উঠে এসেছিল।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত