সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

নতুন সিইসি চান ড. কামাল

আপডেট : ২৫ নভেম্বর ২০১৮, ০৮:১২ পিএম

বর্তমান প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) পরিবর্তন করে নতুন কাউকে নিয়োগ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন গণফোরাম সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন।

রোববার ( ২৫ নভেম্বর)  জাতীয় প্রেসক্লাবে আনুষ্ঠানিকভাবে সাবেক আওয়ামী লীগ নেতা মেজর জেনারেল (অব.) আ. ম. সা আমিন ও একুশে টেলিভিশনের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুস সালামের গণফোরামে যোগদান অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

এক সময়কার আওয়ামী লীগ নেতা ড. কামাল আরো বলেন, “সিইসির ওপর আমরা প্রথম থেকেই সন্তুষ্ট নই। তার পরিবর্তে একজন বিশ্বাসযোগ্য লোককে আনতে হবে। উনি বয়স্ক লোক, সিনিয়র অফিসার ছিলেন। আমি উনাকে আবারও বলছি- এখনো সময় আছে, এতোদিন যা করেছেন করেছেন এখন থেকে পরিবর্তন হন।”

তিনি অভিযোগ করেন, সরকার দলীয়রা পুলিশ প্রোটকল নিয়ে নির্বাচনী প্রচার চালাচ্ছে। অথচ বিরোধীরা প্রচারণা চালালে, ঘরোয়া বৈঠক করলে তাদের গ্রেফতার করা হচ্ছে।

বিএনপিপ্রধান সরকারবিরোধী জোট ঐক্যফ্রন্টের এ নেতা বলেন, এখনই পাইকারি হারে গ্রেফতার বন্ধ হওয়া দরকার। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উচিত ধরপাকড় না করে সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনের পরিকল্পনা করা। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কোনো সরকারের বাহিনী না, তারা রাষ্ট্রের বাহিনী, জনগণের বাহিনী।

ড. কামাল নির্বাচনে গণমাধ্যমের ভূমিকা সম্পর্কে বলেন, আপনাদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে। মানুষকে ক্ষমতায় আনতে হবে। দেশের মানুষ ক্ষমতার মালিক, তারা যেন এই নির্বাচনে ভূমিকা রাখতে পারে। আপনারা দেখেছেন নির্বাচন সুষ্ঠ হতে হলে জনগণের অংশগ্রহণ গুরুত্বপূর্ণ।

শনিবার নির্বাচন কমিশন ছয় আসনের সব কেন্দ্রে ইভিএম (ইলেকট্রকি ভোটিং মেশিন) ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নেয়। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বিশ্বের অনেক উন্নত দেশ ইভিএমের ব্যবহার বাতিল করেছে। এটা নির্ভরযোগ্য না। বিশেষ কায়দা করলে এক জায়গায় ভোট অন্যজনের ওপর পড়তে পারে, চেকও করা যায় না। ইভিএম দিয়ে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব না।”

যোগদান অনুষ্ঠানে পরে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন আ ম সা আমিন এবং আবদুস সালাম, নিহত আওয়ামী লীগ নেতা শাহ এএমএস কিবরিয়ার ছেলে রেজা কিবরিয়া ও গণফোরামের কার্যকরী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত