শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ইয়াসিরে ইনিংস ব্যবধানে হার নিউজিল্যান্ডের

আপডেট : ২৭ নভেম্বর ২০১৮, ০৭:৫৮ পিএম

ইয়াসির শাহর স্পিন জাদুতে দ্বিতীয় ইনিংসেও পুড়লো নিউজিল্যান্ড। প্রাণপণ লড়েও ইনিংস ব্যবধানের হার এড়াতে পারল দলটি। দারুণ এক জয়ে সিরিজে সমতা ফিরিয়েছে পাকিস্তান।

মঙ্গলবার দুবাই টেস্টের চতুর্থ দিন নিউজিল্যান্ডকে এক ইনিংস ও ১৬ রানে হারায় পাকিস্তান। এই জয়ে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ১-১ সমতা ফেরাল দলটি। এর আগে আবু ধাবিতে প্রথম টেস্টে ৪ রানের রোমাঞ্চর জয় পেয়েছিল নিউজিল্যান্ড।

পাকিস্তানের ৪১৮ রানের জবাবে প্রথম ইনিংসে মাত্র ৯০ রানে গুঁড়িয়ে যাওয়ার পরই নিউজিল্যান্ডের হার সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। ফলোঅনে পড়া দলটি দ্বিতীয় ইনিংসে লড়েছে খুব। কিন্তু বাধা সেই ইয়াসির। তার ঘূর্ণি বলে ইনিংস হারের লজ্জা এড়াতে পারেনি কিউইরা।

দ্বিতীয় ইনিংসে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ৩১২। দুই উইকেটে ১৩১ রান নিয়ে ব্যাট করতে নেমে মঙ্গলবার আর ১৮১ রান করে বাকি আট উইকেট হারায় দলটি।

দলীয় ১৪৬ রানে পড়ে দিনের প্রথম উইকেট। অর্ধশতক পূর্ণ করতেই হাসান আলির বলে কট বিহাইন্ড হন আগের দিন ৪৪ রানে অপরাজিত থাকা টম ল্যাথাম। ভাঙে রস টেইলরের সঙ্গে তার ৮০ রানের জুটি। ১৫৮ বলে খেলা ল্যাথামের ৫০ রানের ইনিংসটিতে বাউন্ডারির মার চারটি।

চতুর্থ উইকেটে হ্যানরি নিকোলসের জুটি গড়েন টেইলর। দলীয় ১৯৮ রানে ৫২ রানের এই জুটিতে ফাটল ধরান অফস্পিনার বিলাল আসিফ। তার বলে সুইপ করতে গিয়ে ইয়াসিরের তালুবন্দি হন টেইলর। উইকেট ছাড়ার আগে আগের দিন ৪৯ রানে অপরাজিত থাকা বিশেষজ্ঞ এই ব্যাটার করেন ৮২ রান। ১২৮ বলে খেলা তার ইনিংসটি সাজান সাতটি চার ও এক ছক্কায়।

চার উইকেটে ২২২ রান নিয়ে লাঞ্চের বিরতিতে যায় নিউজিল্যান্ড। বিরতির পরই জ্বলে ওঠেন ইয়াসির। এই লেগ স্পিনারের বলে এলবিডব্লিউর শিকার হন ওয়াটলিং। রিভিউ নিয়েও রক্ষা পাননি ৬৫ বলে দুই চারে ২৭ রান করা ছয় নম্বরে নামা এই ব্যাটার। কিউইদের রান তখন পাঁচ উইকেটে ২৫৫।

৫৭ রানে বাকি পাঁচ উইকেট হারিয়ে বসে নিউজিল্যান্ড। নিচের দিকের চার ব্যাটসম্যানই আউট হন ইয়াসিরের বলে। এই চারজনের মোট রান ২৮।

পাঁচ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে অনেক চেষ্টা করেও দলকে ইনিংস ব্যবধানের হার থেকে রক্ষা করতে পারেনি নিকোলস। দলীয় ৩০১ রানের সময় ব্যক্তিগত ৭৭ রানে হাসানের বলে বোল্ড হন বাঁহাতি এই ব্যাটার। ১৮৭ বলে খেলা তার ইনিংসটিতে রয়েছে সাতটি চার ও একটি ছক্কার মার।

১৪৩ রানে ছয় উইকেট নেন প্রথম ইনিংসে আট উইকেট নেওয়া ইয়াসির। ৪৬ রানে তিন উইকেট নেন হাসান। একটি উইকেট বিলালের।

আবু ধাবিতে তিন ডিসেম্বর শুরু হবে দল দুটির মধ্যকার সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্ট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পাকিস্তান ১ম ইনিংস: ৪১৮/৫ ইনিংস ঘোষণা

নিউ জিল্যান্ড ১ম ইনিংস: ৯০

নিউ জিল্যান্ড ২য় ইনিংস: (ফলো অন) ১১২.৫ ওভারে ৩১২ (আগের দিন শেষে ১৩১/২) (ল্যাথাম ৫০, টেইলর ৮২, নিকোলস ৭৭, ওয়াটলিং ২৭, ডি গ্র্যান্ডহোম ১৪, সোধি ৪, ওয়েগনার ১০, প্যাটেল ৫*, বোল্ট ০; আব্বাস ০/২৯, হাসান ৩/৪৬, ইয়াসির ৬/১৪৩, হাফিজ ০/৬, বিলাল ১/৬১, হারিস ০/১৬)

ফল: পাকিস্তান ইনিংস ও ১৬ রানে জয়ী

ম্যাচ সেরা: ইয়াসির শাহ

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত