বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

হঠাৎ বন্ধ শিশু পার্ক, কবে খুলবে কেউ জানে না

আপডেট : ০৬ জানুয়ারি ২০১৯, ০৬:৪৫ পিএম

ঢাকা শহরের প্রাণকেন্দ্র শাহবাগে অবস্থিত কেন্দ্রীয় শিশুপার্ক অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। শিশু পার্ককে ‘স্বাধীনতা স্তম্ভ’ প্রকল্পের আওতায় রেখে ‘সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বাধীনতা স্তম্ভ নির্মাণ’ শীর্ষক তৃতীয় পর্যায়ের কাজের জন্য পার্কটি বন্ধ রাখা হয়েছে।

শিশু পার্কে প্রবেশের মূল ফটকে জরুরি বিজ্ঞপ্তি আকারে বন্ধের নোটিশ টানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। সেখানে বলা হয়েছে, ‘ঢাকাস্থ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বাধীনতা স্তম্ভ নির্মাণ (৩য় পর্যায়) প্রকল্পের আওতায় কেন্দ্রীয় শিশু পার্কে উন্নয়নমূলক কাজ করার লক্ষ্যে অনির্দিষ্টকালের জন্য পার্কের সকল কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। উন্নয়নমূলক কাজ শেষে পুনরায় সর্বসাধারণের জন্য কেন্দ্রীয় শিশু পার্ক খোলা হবে।’

এদিকে পার্ক বন্ধের খবর না জানার কারণে অসংখ্য দর্শনার্থী তাদের সন্তানদের নিয়ে শিশু পার্কে এসে বন্ধের নোটিশ দেখার পর ফিরে যাচ্ছেন। রোববার সরেজমিন গিয়ে এমন অসংখ্য দর্শনার্থীকে ফিরে যেতে দেখা গেছে।

জানতে চাইলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নগর-পরিকল্পনা বিভাগের প্রধান মো. সিরাজুল ইসলাম দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘শিশু পার্কটি দক্ষিণ সিটির তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হলেও  ‘স্বাধীনতা স্তম্ভ’ প্রকল্পের আওতায় চলে যাওয়ায় উন্নয়নমূলক কার্যক্রম প্রথমে পিডব্লিউডি(গণপূর্ত অধিদপ্তর) এবং পরবর্তীতে এখন মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয় তদারকি করছে।’

ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ও ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর আত্মসমর্পণের স্থান দুটি সংরক্ষণে ‘স্বাধীনতা স্তম্ভ’ প্রকল্পের আওতায় আসছে শিশু পার্ক। এ সম্পর্কিত একটি মহাপরিকল্পনা ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে উপস্থাপন করা হলে তিনি তা অনুমোদন করেন। এক বছরেরও বেশি সময় পর প্রকল্পটির কাজ শুরু হল।

প্রকল্পের নকশা অনুযায়ী শিশু পার্কের এখনকার এন্ট্রি আর থাকবে না। স্বাধীনতা স্তম্ভ, শিখা চিরন্তন এবং শিশু পার্কের এন্ট্রি এক পয়েন্টে হবে। ঢুকলেই প্রথমে স্বাধীনতা স্তম্ভ চোখে পড়বে। এরপর অন্যান্য দিকে যাওয়া যাবে। এ ছাড়া শিশুপার্কে নতুন আরও ১১টি রাইড সংযুক্ত করা হবে বলেও জানা গেছে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত