বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

সাকিবের দুর্লভ রেকর্ডে ভাগ বসালেন আফ্রিদি

আপডেট : ০৭ জানুয়ারি ২০১৯, ০৭:৩৭ পিএম

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ষষ্ঠ আসরে নিজের প্রথম ম্যাচেই দারুণ পারফরম্যান্সে দলকে জিতিয়েছেন শহীদ আফ্রিদি। রোববার সিলেট সিক্সার্সের বিপক্ষে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের জয়ের নায়ক আফ্রিদি পেয়েছেন ম্যাচ সেরার পুরস্কারও। বল হাতে ১ উইকেট নেওয়ার পর ব্যাট হাতে করেন অপরাজিত ৩৯ রান। এদিন দুর্লভ এক মাইলফলকও গড়েছেন আফ্রিদি।

সব ধরনের টি-টোয়েন্টি মিলে মাত্র তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে ৩০০ উইকেটের সঙ্গে ৪০০০ রানের কীর্তি গড়েছেন আফ্রিদি। অনন্য এই ডাবল আছে মাত্র দুই ক্রিকেটারের। ডোয়াইন ব্রাভো ও সাকিব আল হাসানের পর আফ্রিদি তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে এই ডাবল গড়ার কৃতিত্ব দেখালেন।

কুমিল্লা-সিলেট ম্যাচ শুরুর আগে আফ্রিদি একটু আড়ালে ছিলেন। এই ম্যাচে সবচেয়ে বড় চরিত্র ছিলেন দুজন- স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার। বল টেম্পারিং কাণ্ডে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আপাতত নিষিদ্ধ দুজনের একসঙ্গে এদিন অভিষেক বিপিএলে। দুই দলের অধিনায়ক হয়ে মুখোমুখি হলেন দুই অস্ট্রেলিয়ান।

image

তবে ওয়ার্নার-স্মিথকে পেছনে ফেলে আলোয় ভাস্বর আফ্রিদি। চাপের মুখে ২৫ বলে ৩৯ রানের ইনিংস খেলে দলকে জয় উপহার দেন পাকিস্তানি অলরাউন্ডার। ৩৮ বছর বয়সী আফ্রিদি হাঁকিয়েছেন ৫ চার ও ২ ছক্কা। কুমিল্লা ১২৮ রানের লক্ষ্য তাতে পেরোয় ১ বল হাতে রেখে। এরআগে বোলিংয়ে ৪ ওভার বল করে ২৯ রানে ১ উইকেট নেন আফ্রিদি। একটি ওভার দেন মেইডেন।

মিরপুরে ম্যাচটি খেলতে নামার আগে সবধরনের টি-টোয়েন্টিতে আফ্রিদির উইকেট সংখ্যা ছিল ৩০৮টি। আর রান ছিল ৩৯৮২। অর্থাৎ ডাবল গড়তে ১৮ রান প্রয়োজন ছিল তার। ৩৯ রানের ইনিংস খেলার পথেই ব্রাভো ও সাকিব আল হাসানের পর দুর্দান্ত ডাবলের কীর্তি গড়েন আফ্রিদি।

সব ধরনের টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে ক্যারিবিয়ান তারকা ডোয়াইন ব্রাভোর রান ৬০৮২, উইকেট ৪৬৪। ৪২১ ম্যাচ খেলেছেন তিনি। ২৮১ ম্যাচে সাকিবের রান ৪৪৫৫, উইকেট ৩২২।

পাকিস্তানি তারকাদের মধ্যে পঞ্চম ব্যাটসম্যান হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে চার হাজার রানের কীর্তি হলো আফ্রিদির। এর আগে আহমেদ শেহজাদ (৫৪০৯), কামরান আকমল (৫৩৩১), উমর আকমল (৫১৫৩) ও আজহার মাহমুদ (৪০৯১) সবচেয়ে ছোট সংস্করণের ক্রিকেটে এই কীর্তি গড়েছেন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত