শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ইরানি অভিবাসীর দুঃসাহসিক যাত্রা, নড়েচড়ে বসেছে ব্রিটেন

আপডেট : ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৫:২২ পিএম

ছয় লাখ টাকা খরচ করে ৩৫০০ মাইল পাড়ি। কখনো নৌকায়, কখনো জাহাজে। জীবনকে হাতের মুঠোয় নিয়ে ইরানের শরণার্থী মেহেরদাদ কাজেমি আশ্রয় নিয়েছেন ইংল্যান্ডে। ডেইলি মেইলের সঙ্গে আলাপকালে দুঃসাহসিক এই অভিযানের বর্ণনা দিয়েছেন তিনি।

‘ঘণ্টার পর ঘণ্টা সমুদ্রে কাটিয়ে হাতে-পা অবশ হয়ে যায়। এখনো ঠিকমতো কাজ করতে পারি না। কিন্তু ইংল্যান্ডে আসতে পেরে ভালো লাগছে,’ বলছিলেন ৩০ বছর বয়সী মেহেরদাদ।

মেহেরদাদসহ প্রায় ৪৩৪ জন পালিয়ে আসা মানুষকে আটক করেছে ইংল্যান্ড। এদের অধিকাংশই ইরানের নাগরিক। ব্রিটিশ সরকার এই ঘটনায় নড়েচড়ে বসেছে। সাগরপথে আরও নজরদারি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

মেহেরদাদ তেহরানে ছোট একটি চাকরি করতেন। ইংল্যান্ডে এসে অক্সফোর্ডে পড়ার স্বপ্ন দেখছেন।

ইরানের ইসলামি শাসন ব্যবস্থার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে দেশছাড়া হন তিনি। কয়েক জন বন্ধুকে নিয়ে বাকস্বাধীনতার পক্ষে জনমত গড়ে তোলার চেষ্টা করেন। রাতে-রাতে বিলি করতে থাকেন লিফলেট।

কয়েক দিনের ভেতর মেহেরদাদ পুলিশের রোষানলে পড়েন। তার দুই বন্ধু গ্রেপ্তার হন। তখন পরিবার থেকে মেহেরদাদকে বিদেশে চলে যেতে বলা হয়। মেহেরদাদও রাজি হয়ে যান।

মেহেরদাদ বাড়ি ছাড়েন ২৫ অক্টোবর। বাসে পাঁচ ঘণ্টা ভ্রমণ করে প্রতিবেশী দেশ তুর্কির মাকুতে আসেন। এরপর পাচারকারীদের সাহায্য নিয়ে আসেন ইস্তাম্বুলে। সেখান থেকে অন্য একটি দলের সঙ্গে ইউরোপের দিকে যাত্রা করেন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত