সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

অতিরিক্ত শ্রেণি শিক্ষকদের স্থায়ী নিয়োগের দাবি

আপডেট : ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:২৮ এএম

অবিলম্বে চাকরি স্থায়ীকরণ বা পরবর্তী প্রকল্পে স্থানান্তরের দাবি জানিয়েছেন অতিরিক্ত শ্রেণি শিক্ষকরা। গতকাল রবিবার সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন তারা। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে অতিরিক্ত শ্রেণি শিক্ষক (এসিটি) অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি কৌশিক চন্দ্র বর্মণ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে চাকরি স্থায়ীকরণের সুপারিশের চিঠি উপেক্ষা করে শিক্ষা মন্ত্রণালয় আমাদের রাখতে চাচ্ছে না। মন্ত্রণালয়ে কারা আছে, যারা আমাদের চাকরি স্থায়ীকরণে বাধার সৃষ্টি করছে? অবিলম্বে স্থায়ীকরণের লিখিত ঘোষণা নিয়ে আমরা স্কুলে ফিরে যেতে চাই।’ তিনি বলেন, ‘মৌখিক আশ্বাসে আমরা এতদিন ক্লাস নিয়ে এসেছি। গত ১৪ মাস ধরে বেতন ছাড়া চলছি।’ অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তব্য দেন শিক্ষক নেতা রাফিউল ইসলাম রাফি, শহিদুল ইসলাম, রইজ উদ্দিন ও ওসমান গনি। উপস্থিত ছিলেন এটিসি অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মামুন হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন প্রমুখ।

সংগঠনের নেতারা জানান, বিশ্বব্যাংক ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে ২০১৫ সালে সেকেন্ডারি এডুকেশন কোয়ালিটি অ্যান্ড অ্যাকসেস এনহ্যান্সমেন্ট প্রকল্প (সেকায়েপ) শুরু হয়। এর অধীনে দুই হাজার ১০০টি স্কুলে ইংরেজি, গণিত ও বিজ্ঞানের পাঁচ হাজার ২০০ জন শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হয়। ২০১৭ সালে প্রকল্প শেষে এ শিক্ষকদের নিজ প্রতিষ্ঠানে চাকরি স্থায়ীকরণের কথা থাকলেও গত ১৩ মাসে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে মাধ্যমিক পর্যায়ে নতুন প্রকল্প এসইডিপি চালু হলেও সেখানে এসিটিদের নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে না। এতে হতাশ হয়ে পড়েছেন শিক্ষকরা।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত