মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

‘যারা ভোট দিতে পারেনি’ তাদের কালোব্যাজ কর্মসূচিতে আহ্বান ঐক্যফ্রন্টের

আপডেট : ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৮:৩১ পিএম

৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে ‘ভোট  ডাকাতির’ প্রতিবাদে বুধবার বিকেল ৩টা থেকে চারটা পর্যন্ত জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে কালোব্যাজ ধারণ কর্মসূচি পালন করবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। ‘ভোট দিতে না পারা’ দলমত নির্বিশেষে সবাইকে এ কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে সরকারবিরোধী এ জোট।

সোমবার দুপুরে পুরানা পল্টনের জামান টাওয়ারে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের কার্যালয়ে এর সমন্বয়ক কমিটির সভা শেষে সাংবাদিকদের এমনটা জানান ঐক্যফ্রন্ট ঢাকা মহানগর শাখার সমন্বয়ক ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম।

এর আগে বিএনপিপ্রধান এ জোটের শরিক দলগুলোর মহানগর নেতারা বৈঠকে অংশ নেন।

বৈঠক শেষে আব্দুস সালাম বলেন, যেহেতু ৩০ ডিসেম্বর দেশের জনগণ ভোট দিতে পারেনি, সে জন্য সব দলমত নির্বিশেষে ঐক্যফ্রন্টের বাইরেও যারা আছেন, সবাইকে এ ব্যাপারে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানাই।

আব্দুস সালাম বলেন, আমরা চাই জনগণ ভোট দিতে না পারার যে ক্ষোভ সেটা প্রকাশের জন্য সবাই এ কর্মসূচির সঙ্গে সম্পৃক্ত হবে। সবাইকে বলব, বেলা তিনটার মধ্যে সমবেত হয়ে কালো ব্যাজ ধারণ করেন।

তিনি ২৪ ফেব্রুয়ারি ঐক্যফ্রন্ট ঘোষিত গণশুনানির কর্মসূচির স্থান ও সময় পরে এখনো নির্ধারিত হয়নি বলে জানান।

আব্দুস সালাম বলেন, এই দুটি কর্মসূচি সার্থক করার জন্য মূলত তারা বৈঠক করেছেন। ফ্রন্টের দলগুলোর নেতাদের নিয়ে আলোচনা করেছেন, কীভাবে কর্মসূচি সফল করা যায়।

ঢাকা ১৩ আসনের ধানের শীষের এই প্রার্থী বলেন, এ দেশে ভোটের নামে প্রহসন হয়েছে। এখন দেশের জনগণসহ বিশ্ববাসী আর কেউ বলবে না আওয়ামী লীগের অধীনে জাতীয় নির্বাচন হোক।

সালাম বলেন, যেহেতু কোনো ভোট হয়নি সেহেতু ফ্রন্টের পক্ষ থেকে ভোট প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে। তারা এখন পর্যন্ত চেষ্টা করছে ঐক্যফ্রন্টের কাউকে কাউকে নিয়ে শপথ পাঠ করিয়ে জনগণ বা বিশ্ববাসীকে দেখান যায় কি না। কিন্তু ঐক্যফ্রন্ট ঐক্যবদ্ধ আছে। ঐক্যফ্রন্টের কারো শপথ নেওয়ার প্রশ্নই আসে না।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপি নেতা কাজী আবুল বাশার, নবী উলাহ নবী, গণফোরাম নেতা জগলুল হায়দার আফ্রিক, রফিকুল ইসলাম পথিক, জেএসডির নেতা মমিনুল ইসলাম, বিকল্প ধারার মহাসচিব শাহ আহমদ বাদল প্রমুখ।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত