সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বিনা দোষে জাহালমের কারাবাস ‘অপরাধী’ সালেকের বাড়ি নিস্তব্ধ

আপডেট : ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৩:১৮ এএম

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) ‘ভুলে’ বিনা দোষে প্রায় তিন বছর কারাবাসের পর ছাড়া পাওয়ায় জাহালমের টাঙ্গাইলের বাসায় আনন্দের ঢেউ বইছে, অন্যদিকে নিস্তব্ধ ‘অপরাধী’ আবু সালেকের বাড়ি। ঠাকুরগাঁওয়ের সালেকের বদলে ৩৩ মামলার আসামি হয়ে জেল খেটেছেন জাহালম। গতকাল সোমবার সদর উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের সিঙ্গিয়া গ্রামে সালেকের বাড়িতে গিয়ে নীরব-নিস্তব্ধতা চোখে পড়ে।

স্বজনরা জানান, বছরখানেক ধরে খোঁজ নেই সালেকের। বাড়ির কারও সঙ্গে তার যোগাযোগ নেই। বাবা, মা ও বিবাহিত বোন থাকলেও আলিশান বাড়িটি সবসময় ভেতর থেকে তালাবদ্ধ থাকে। স্থানীয়রা জানায়, সালেক হঠাৎ ধনী হওয়ার পর দুই বছর আগে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। এর আগে প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বছরখানেক সংসারের পর বিচ্ছেদ হয়। আর দ্বিতীয় স্ত্রীর সঙ্গে সালেকের বাবা-মার বনিবনা না হওয়ায় তিনি এই বাড়িতে আসেন না।

সালেকের বাবা আবদুল কুদ্দুস জানান, এসএসসি পরীক্ষার পর বকুনি খেয়ে ঢাকায় পাড়ি জমায় তার তৃতীয় সন্তান ও একমাত্র ছেলে সালেক। ঢাকায় থাকাবস্থায় পরিবারের কারও সঙ্গে তেমন যোগাযোগ রাখত না সে। জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরির সঙ্গে সালেক যুক্ত ছিল এ তথ্যই জানতেন তারা।

আবদুল কুদ্দুসও তার ছেলের অপকর্মের শাস্তি দাবি করেছেন। তবে তিনি দাবি করেন, সালেক আত্মসাৎ করা টাকা কখনো তাদের দেয়নি। ওই টাকায় পঞ্চগড়ের বোদায় সম্পদ গড়েছে সালেক। পৈতৃক সূত্রে পাওয়া আবাদি ২০ বিঘা জমি থেকে সংসার পরিচালনা ও ঘর নির্মাণের দাবি করেন তিনি।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত