মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

নিজেদের খামারবাড়ির নৈশপ্রহরীর হাতে খুন হন স্বামী-স্ত্রী

আপডেট : ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৮:৪৯ পিএম

নীলফামারীর সৈয়দপুরে নিজের খামার বাড়িতে নৈশপ্রহরীর হাতে খুন হয়েছেন নজরুল-সালমা দম্পতি।

মঙ্গলবার বিকেলের দিকে আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে খুনের কথা স্বীকার করেছেন খামারের নৈশপ্রহরী আবদুর রাজ্জাক।

মঙ্গলবার রাতে সৈয়দপুর থানায় এক সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি নিশ্চিত করেন নীলফামারীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পাল (পিপিএম)। এ সময় সৈয়দপুর থানা পুলিশের পরিদর্শক মো. শাহজাহান পাশা, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা  ও সৈয়দপুর থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আতাউর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার  জানান,‘ঘটনার পর থেকে আবদুর রাজ্জাক রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। মঙ্গলবার সে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলে দুপুরের দিকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে খুনের কথা স্বীকার করেছে। বিকেলে  আবদুর রাজ্জাককে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণের জন্য নীলফামারী জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম জাহিদ হাসানের আদালতে হাজির করা হয়।

সৈয়দপুর থানার ওসি শাহজাহান পাশা জানান, গত ২৭ জানুয়ারি ভোর রাতে সৈয়দপুর উপজেলার খাতামধুপুর ইউনিয়নের বালুবাড়ি গ্রামে নিজের খামার বাড়িতে খামার মালিক শেখ নজরুল ইসলাম (৬০) ও তার দ্বিতীয় স্ত্রী সালমা বেগমকে (৪৮) কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করা হয়। এ সময় আহত হন ওই খামের নৈশপ্রহরী আবদুর রাজ্জাক। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দম্পতির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জেলা মর্গে পাঠানো হয়। এবং আহত নৈশপ্রহরীকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।

খুনের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে নৈশপ্রহরী আবদুর রাজ্জাকসহ চারজনের নাম উল্লেখ করে ঘটনার পরের  দিন  সৈয়দপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন  নিহত দম্পতির ছেলে বড় ছেলে সোহেল রানা।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত