রোববার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

চট্টগ্রামে ‘মূকাভিনয়ে নারী সম্মাননা’ পেলেন সাদিয়া আফরীন

আপডেট : ০৪ মার্চ ২০১৯, ০৮:৪৯ পিএম

গত ১ ও ২ মার্চ চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে প্লাটফর্ম মনোমাইম বাংলাদেশের আয়োজনে অনুষ্ঠিত ‘বীর চট্টলা মূকাভিনয় উৎসব ২০১৯’ শীর্ষক দুই দিন ব্যাপি আয়োজনে অনাদিকল্পের সাংগঠনিক সম্পাদক সাদিয়া আফরীনকে ‘মূকাভিনয়ে নারী সম্মাননা’ প্রদান করা হয়।

তিনি দীর্ঘ দিন যাবৎ নানা প্রতিকূলতার মধ্যেও নিয়মিতভাবে তাদের মূকাভিনয় চর্চা করে আসছেন। বর্তমানে দেশের অনেক নারীই এই শিল্পচর্চায় আগ্রহী হয়ে আসছেন। এই সম্মাননা তাদেরকে নিয়মিতভাবে মূকাভিনয় চর্চায় অনুপ্রাণিত করবে বলে আয়োজকরা বিশ্বাস করেন।

সাদিয়া আফরীন চট্টগ্রামের মূকাভিনয় অঙ্গনে একটি পরিচিত নাম। ২০১০ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে রবীন্দ্রনাথের রাজা ও রাজদ্রোহী নাটকে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে মঞ্চাভিনয়ের শুরু হলেও তিনি প্রথম মূকাভিনয় করেন ২০১১ সালে অনাদিকল্পের ‘তৃতীয় বিশ্ব’ মূকনাটকে। সীমান্ত হত্যা নিয়ে রচিত এই মূকনাট্যে ‘ফেলানী’ চরিত্রে অভিনয় করেন। এরপর অনাদিকল্পের আরেকটি মূকনাটক ‘প্রকৃতি ও পুরুষের গল্প’-এর একাধিক গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেন।

এরপর একে একে ক্যামেরা ম্যাজিক, বৃক্ষশিশু ও মা, ডাস্টবিন রিভেঞ্জ, স্টেপ আপ গার্ল, ক্লাসরুম অর জুরাসিক পার্ক, হোয়েন সরো ফেইডস দ্য লাফটারসহ ২০-এর অধিক মূকাভিনয় প্রযোজনায় অভিনয় করেন। ২০১৮ সালে অনাদিকল্পের অন্যতম মূকনাটক ‘নির্ঝরের স্বপ্নভঙ্গ’-এ অভিনয়ের পাশাপাশি সহকারি নির্দেশকের ভূমিকা পালন করেন।

নিয়মিত মূকাভিনয় প্রদর্শনীর পাশাপাশি তিনি মূকাভিনয়ের বেশ কয়েকটি গল্পও লিখেছেন, যা চট্টগ্রাম, ঢাকাসহ বিভিন্ন জায়গায় প্রদর্শিত হয়েছে।  ‘ডাস্টবিন রিভেঞ্জ’ ও ‘স্টেপ আপ গার্ল’-র স্ক্রিপ্ট তার লেখা। ‘ওয়ান ডে ইন আ হোটেল’ তার রচিত ও অভিনীত একক মূকাভিনয় প্রযোজনা।

নিয়মিত মঞ্চে মূকাভিনয়ের পাশাপাশি চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্কুলে প্রযোজনাভিত্তিক মূকাভিনয় প্রশিক্ষণ দিয়েছেন। ২০১৭ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ও আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ চট্টগ্রামের যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত French Week-এ তার রচনা ও নির্দেশনায় মূকাভিনয় প্রদর্শিত হয়। একই বছর কিংবদন্তী মূকাভিনেতা মার্সেল মার্সোর জন্মদিনে আলিয়ঁস ফ্রঁসেজে অনুষ্ঠিত Tribute to Marcel Marceau অনুষ্ঠানেও মূকাভিনয় পরিবেশন করেন তিনি।

২০১৫ সাল থেকে তিনি নাটক ও মূকাভিনয় সংগঠন অনাদিকল্পের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। মূকাভিনয়ের পাশাপাশি তিনি নিয়মিত বাচিক নাটকেও অভিনয় করেন।

সম্মাননা প্রাপ্তি প্রসঙ্গে সাদিয়া বলেন, “২০১১ থেকে মূকাভিনয় শুরু করে এখন পর্যন্ত যে পরিশ্রম করেছি তার স্বীকৃতি কাজের মাধ্যমে প্রশংসা কুড়িয়ে বহুবার পেলেও এই সম্মাননা সেই স্বীকৃতিকে পূর্ণতা দিয়েছে। পাশাপাশি মূকাভিনয় নিয়ে কাজের আগ্রহ ও দায়বোধ বাড়িয়ে দিয়েছে। মূকাভিনয় নিয়ে যে আকাক্সক্ষা ও পরিকল্পনাগুলো আমার আগে হয়নি তা আজকের পর থেকে আমাকে সামনে এগিয়ে যেতে নতুন করে ভাবাবে। প্লাটফর্ম মনোমাইম বাংলাদেশের প্রতি কৃতজ্ঞতা আমাকে মূল্যায়ন করার জন্য।”

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত