মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

এমসিসির ২৩৪ বছরের ইতিহাসে প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট কনর

আপডেট : ০১ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩৮ পিএম

ক্লেয়ার কনর অধিনায়ক থাকাকালীন প্রথম অ্যাশেজ জিতেছিল ইংল্যান্ড প্রমীলা ক্রিকেট দল। এবার এমসিসি’র ইতিহাসে প্রথম নারী হিসেবে প্রেসিডেন্ট পদের দায়িত্ব নিলেন তিনি।

ক্রিকেটের আইন প্রণয়নকারী সংস্থা এমসিসির (মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব) ২৩৪ বছরের ইতিহাসে প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট হলেন কনর। শুক্রবার লর্ডসের অফিসের দায়িত্ব নেন ৪৫ বছর বয়সী সাবেক এই ইংলিশ অলরাউন্ডার।

কনর ইসিবির (ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড) নারী ক্রিকেট দলের ডিরেক্টর হিসেবেও দায়িত্বে আছেন। এমসিসির প্রেসিডেন্ট পদে তার পূর্বসূরি ছিলেন কুমার সাঙ্গাকারা।

গত বছর ক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) প্রেসিডেন্ট পদের জন্য মনোনীত হন কনর। কিন্তু কভিড-১৯ মহামারির কারণে যোগ দিতে পারেননি তিনি। যার ফলে, তখনকার প্রেসিডেন্ট সাঙ্গাকারার মেয়াদ আরও এক বছর বাড়ানো হয়।

এমসিসির প্রেসিডেন্ট হতে পেরে উচ্ছ্বসিত কনর, ‘এমসিসিরি প্রেসিডেন্ট হওয়ায় আমি সত্যিই সম্মানিত বোধ করছি।’ গুরুত্বপূর্ণ এই পদে তার ওপর বিশ্বাস রাখার জন্য সাঙ্গাকারাকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

১৯ বছর বয়সে ১৯৯৫ সালে ইংল্যান্ড প্রমীলা জাতীয় ক্রিকেট দলে অভিষেক হয় কনরের। ২০০০ সালের অধিনায়ক হন তিনি। এক বছর পর লর্ডসে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইংলিশদের নেতৃত্ব দেন তিন। বাঁহাতি স্পিন করা এই অলরাউন্ডারের নেতৃত্বে ৪২ বছরের ইতিহাসে প্রথম অ্যাশেজে জেতে ইংলিশ নারীরা। ২০০৫ সালে ১-০ ব্যবধানে অজি মেয়েদের হারায় ইংল্যান্ড।

এই সিরিজের পর অবসর নেন কনর। ২০০৯ সালে তিনি এমসিসি সম্মানসূচক আজীবন সদস্য নির্বাচিত হন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত