রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ফ্রান্সের গির্জায় হাজার হাজার শিশুকামী পাদ্রী

আপডেট : ০৩ অক্টোবর ২০২১, ০২:৫৯ পিএম

১৯৫০ সাল থেকে ফরাসি ক্যাথলিক গির্জায় হাজার হাজার ধর্মীয় ব্যক্তিত্ব শিশুদের ওপর যৌন নির্যাতন চালিয়েছেন। গির্জার যৌন কেলেঙ্কারি নিয়ে তদন্তকারী একটি স্বাধীন কমিশনের প্রধান জ্যাঁ-মার্ক স্যুভে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে একথা বলেছেন। তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশের কয়েকদিন আগেই তিনি এই তথ্য প্রকাশ করলেন।

ওই তদন্ত কমিশনের গবেষণায় উঠে এসেছে যে, ১৯৫০ থেকে বর্তমান পর্যন্ত ফ্রান্সের ক্যাথলিক গির্জার পুরোহিত বা অন্যান্য সদস্যদের মধ্যে অন্তত ২৯০০ থেকে ৩২০০ জন শিশুকামী ছিলেন। জ্যাঁ-মার্ক স্যুভে বলেন, এটি ‘সর্বনিম্ন অনুমান’।

চার্চ, আদালত ও পুলিশ আর্কাইভ এবং সাক্ষীদের সাক্ষাৎকারের উপর ভিত্তি করে আড়াই বছরের গবেষণার পর আগামী মঙ্গলবার কমিশনের তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ হওয়ার কথা রয়েছে।

স্যুভে বলেন, তারা ২,৫০০ পৃষ্ঠার যে প্রতিবেদন তৈরি করেছেন তাতে অপরাধীদের সংখ্যা এবং শিকারের সংখ্যা উভয়ই পরিমাপ করার চেষ্টা করা হয়েছে।

এছাড়া এই প্রতিবেদনে গির্জার মধ্যে ‘যেসব প্রক্রিয়া, বিশেষ করে যে প্রাতিষ্ঠানিক এবং সাংস্কৃতিক প্রক্রিয়া শিশুকামীদেরকে আশ্রয়-প্রশ্রয় দেয় সেসবও উদ্ঘাটন করা হবে এবং ৪৫টি পরামর্শ দেওয়া হবে।

ফ্রান্সে এবং বিশ্বব্যাপী ক্যাথলিক গির্জাকে কাঁপানো কয়েকটি কেলেঙ্কারির প্রতিক্রিয়ায় ২০১৮ সালে এই স্বাধীন কমিশন গঠন করা হয়। ফরাসি ক্যাথলিক চার্চ কর্তৃপক্ষ নিজেই এই কমিশন গঠন করে।

এই কমিশন গঠন করার আগে পোপ ফ্রান্সিস ক্যাথলিক চার্চে যারা যৌন নির্যাতন সম্পর্কে জানেন তাদেরকে উর্ধ্বতনদের কাছে সে সম্পর্কে রিপোর্ট করতে বাধ্য করার জন্য একটি যুগান্তকারী আইনও পাস করেন।

২২ জন আইনজীবী, ডাক্তার, ঐতিহাসিক, সমাজবিজ্ঞানী এবং ধর্মতাত্ত্বিকদের নিয়ে গঠিত এই কমিশনকে ১৯৫০ এর দশক পর্যন্ত গির্জার পাদ্রীদের বিরুদ্ধে শিশু যৌন নির্যাতনের অভিযোগ তদন্ত করার দায়িত্ব দেওয়া হয়।

এই কমিশন যখন কাজ শুরু করে তখন তারা সাক্ষীদের বিবৃতি আহ্বান করে এবং একটি টেলিফোন হটলাইন স্থাপন করে। তারপর পরবর্তী কয়েক মাসে হাজার হাজার যৌন নির্যাতনের অভিযোগ আসার খবর পাওয়া যায়।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত