বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে বরখাস্ত দুই শুল্ক কর্মকর্তা

আপডেট : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০২:২৩ এএম

ভুয়া মামলা সাজিয়ে এখতিয়ার বহির্ভূতভাবে একটি প্রতিষ্ঠানের গাড়ি আটক, হয়রানি করা ও ১ কোটি টাকা ঘুষ দাবির অভিযোগে মাগুরার কর্মরত কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট বিভাগের দুই কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার যশোর ভ্যাট কমিশনারের কার্যালয়ের কমিশনার মোয়াজ্জেম হোসেন স্বাক্ষরিত আদেশে মাগুরার রাজস্ব কর্মকর্তা বাহারুল ইসলাম ভূঁইয়া ও সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা মুহাম্মাদ আল-মনছুরকে বরখাস্ত করা হয়।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের ৯ জানুয়ারি ওই দুই কর্মকর্তা মাগুরার সদর উপজেলার ইছাখাদা এলাকায় প্রতিষ্ঠিত ‘ভিশন ড্রাগস’ লিমিটেডের একটি কাভার্ড ভ্যান আটক করেন।

পরে তারা ওই প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে ৩ কোটি টাকার ট্যাক্স ফাঁকির অভিযোগ আনেন। ওই ৩ কোটি টাকার দায় থেকে মুক্তি পেতে তাদের কাছে ১ কোটি টাকার ঘুষ দাবি করেন ওই দুই কর্মকর্তা। তাদের দাবিকৃত ১ কোটি টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে কোম্পানির কর্মকর্তাদের ব্যবহৃত সোনার চেইন, আংটি ও কার্যালয়ে রক্ষিত দুই লাখ টাকা জোরপূর্বক নিয়ে যান তারা। একই সঙ্গে ভিশন ড্রাগসের কর্মকর্তাদের ভ্যাট কার্যালয়ে যোগাযোগ করতে বলা হয়। পাশপাশি দাবিকৃত ঘুষের টাকা পরিশোধ না করলে সব পরিচালককে জেলের ভাত খাওয়ানোর হুমকি দেওয়া হয়। এক পর্যায়ে ‘ভিশন ড্রাগস লিমিটেডের’ একজন কর্মকর্তা গত ৮ ফেব্রুয়ারি তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

মাগুরা ভিশন ড্রাগস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু হাসান বলেন, যথাযথ আইন মেনেই আমরা পণ্য উৎপাদন ও বাজারজাত করে আসছি। তারপরও ভুয়া মামলার কাগজপত্র দেখিয়ে ওই দুই কর্মকর্তা আমাদের পণ্য পরিবহনে নানাভাবে বাধা দেন। এতে করে আমরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছিলাম। বিধায় নিতান্ত বাধ্য হয়ে ও ক্ষতি কমিয়ে আনতে তিন দফায় তাদের ২০ লাখ টাকা দেওয়া হয়। কিন্তু তারপরও বাকি টাকা আদায়ে তারা নির্যাতন চালিয়ে যাওয়ায় বাধ্য হয়েই ৮ ফেব্রুয়ারি ঊর্ধ্বতন কর্র্তৃপক্ষ বরাবর অভিযোগ দিয়েছি।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত