সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

দেশি ও বিদেশি অপশক্তি বাংলাদেশে আগ্রাসন চালাচ্ছে: ইশরাক

আপডেট : ৩১ মার্চ ২০২৪, ০৯:০২ পিএম

দেশি ও বিদেশি অপশক্তি যৌথভাবে বাংলাদেশে বহুমুখী আগ্রাসন চালাচ্ছে বলে মন্তব্য করে বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন বলেছেন, রাষ্ট্র চরম সংকট মোকাবিলা করছে। ক্ষমতাসীনরা তাদের বিদেশি প্রভুর সাথে মিলিত হয়ে সাংস্কৃতিক, অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক এবং সীমান্তে আগ্রাসন চালাচ্ছে। 

রবিবার (৩১ মার্চ) জজকোর্ট আইনজীবী সমিতি সংলগ্ন হোটেল অন্নপূর্ণায় কোতায়ালী থানা বিএনপির ৭ নং ওয়ার্ড আয়োজিত এক ইফতার ও দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন। 

ইশরাক বলেন, বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস করে ভারতীয় অপসংস্কৃতি চালু করা হয়েছে। শিক্ষাঙ্গনে মাদক ও সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে সরকাদলীয় ছাত্র সংগঠন। পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বিকৃত করে জাতিকে মেধাশূন্য করার সুদূরপ্রসারী চক্রান্ত বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশকে ভারতীয় পণ্যের স্থায়ী বাজার হিসাবে প্রতিষ্ঠা করতে গিয়ে বাংলাদেশের কৃষি ও শিল্প কলকারখানা বঞ্চিত হচ্ছে। কৃষি পণ্য সংরক্ষণ করতে কার্যকর পদক্ষেপ না নেয়া এবং পণ্য পরিবহনে সরকারদলীয় চাঁদাবাজদের দৌরাত্ম রোধ করতে ব্যর্থ হয়েছে সরকার। এফবিসিসিআই এর বাবসায়ীরা অভিযোগ করেছেন, খোদ এমপি মন্ত্রীরা ভারত থেকে বাংলাদেশে পণ্য চোরাচালান এর সাথে যুক্ত হয়ে পড়েছে। এরই বাজার সিন্ডিকেট করে জনগণের অর্থ লুটে নিচ্ছে। 

তিনি বলেন, বাংলাদেশের গণতন্ত্রকে হত্যা করে একদলীয় শাসনব্যবস্থা কায়েম করা হয়েছে। নিজেদের আজ্ঞাবহ পুতুল সরকার দিয়ে বাংলাদেশকে নিয়ন্ত্রণ করার লক্ষ্যে পর পর তিনটা পাতানো নির্বাচন করিয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। এর ফলে অরাজনৈতিক মাফিয়াচক্র আজকে বাংলাদেশের ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে।

বিএনপির এই তরুণ নেতা বলেন, প্রতিবেশী ভারত বন্ধু রাষ্ট্র হিসাবে নিজেদের দাবি করলেও সীমান্তে প্রতিনিয়ত বাংলাদেশি নাগরিক ও বিজিবি সদস্যদের হত্যা করছে। একটি অনির্বাচিত রাবার স্ট্যাম্প সরকার রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করে থাকায় এর কোনো প্রতিবাদ বা প্রতিকার হচ্ছে না। যাদেরকে প্রভুর আসন দিয়েছে আওয়ামী লীগ সরকার তাদের বিরুদ্ধে কীভাবে প্রতিবাদ করবে?

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত