শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

সিরাজগঞ্জে নির্মাণাধীন সেতুর গার্ডার ধসে শ্রমিক নিহত

আপডেট : ০২ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:১৮ পিএম

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলায় বেসরকারি অর্থনৈতিক অঞ্চলের ভেতর একটি নির্মাণাধীন সেতুর তিনটি গার্ডার ধসে এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও দুজন। মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) সয়দাবাদ ইউনিয়নের বড়শিমুল পঞ্চসোনা এলাকায় ক্রেন দিয়ে একটি গার্ডার সরানোর সময় এ ঘটনা ঘটে।

ধসে পড়া গার্ডারের নিচে চাপা পড়ে নিহত শ্রমিক হলেন জুবায়েল হোসেন (৩২)। তিনি সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার মিরপুর মহল্লার মাহমুদ আলীর ছেলে। আহত দুজন হলেন মো. হাফিজুল ইসলাম (২৪) ও জহুরুল ইসলাম (৬০)। 

সিরাজগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার মো. আতাউর রহমান বলেন, সকালে একটি গার্ডার ক্রেন দিয়ে সরানোর কাজ চলছিল। এ সময় গার্ডারের নিচে কাজ করছিলেন ৩ শ্রমিক। তখন অন্য ৩টি গার্ডার ধসে পড়ে। 

সিরাজগঞ্জ সদর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) সুমন কুমার দাস বলেন, প্রায় ৪ ঘণ্টা চেষ্টার পর দুপুর ২টার দিকে ধসে পড়া গার্ডারের নিচে চাপাপড়া শ্রমিক জুবায়েলকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এরপর সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠালে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

সিরাজগঞ্জ ইকোনমিক জোনের জেনারেল ম্যানেজার ইঞ্জিনিয়ার মো. কামাল হোসেন বলেন, যমুনা নদীর ক্যানেলের ওপর প্রায় ৫৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ২০৩ মিটার দৈর্ঘ্যরে এই সেতুটির নির্মাণকাজ চলছে। এই নির্মাণকাজ চলা অবস্থায় ক্রেন দিয়ে সেতুর গার্ডার সরানোর সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আহত শ্রমিক হাফিজুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা দুই গার্ডারের মাঝখানের ক্রস গার্ডারের কাজ করছিলাম। হঠাৎ গার্ডারগুলো ভেঙে পড়ে। এ সময় আমি দৌড়ে সরে যেতে সক্ষম হলেও বাকি দুজন সরতে পারেনি।’
তিনি জানান, পাশে কাজ করা শ্রমিকরা ছুটে এসে জহুরুলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠান। আর জুবায়েল এমনভাবে চাপা পড়ে যে তাকে প্রথমে খুঁজে পাওয়া যায়নি। 
সিরাজগঞ্জ সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. হাসিবুল্লাহ বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মী ও শ্রমিকদের চাপাপড়া শ্রমিককে উদ্ধারকাজে সহযোগিতা করেন। 

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত