বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

স্ত্রীকে জবাই করে হত্যার ৪ দিন পর স্বামী গ্রেপ্তার

আপডেট : ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৫৫ পিএম

গাজীপুরের শ্রীপুরে পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যার ৪ দিন পর স্বামী  ইদ্রিস আলীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এছাড়াও ঘটনার সঙ্গে জড়িত আর একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) র‌্যাপিড অ্যাকশান ব্যাটালিয়ান (র‌্যাব-১) ও (র‌্যাব-১১) যৌথ অভিযান চালিয়ে কুমিল্লা ও গাজীপুর থেকে দুজনকে গ্রেপ্তার করে। প্রথমে নিহতের স্বামীকে  কুমিল্লা থেকে গ্রেপ্তারর পর তার তথ্যের ভিত্তিতে গাজীপুরের রাজেন্দ্রপুর এলাকা থেকে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত রহমত আলীকেও গ্রেপ্তার করা হয়। পরে গ্রেপ্তারকৃত দুই আসামীকে শ্রীপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে।

র‌্যাব-১  এর স্পেশালাইজড কোম্পানির কোম্পানি কমান্ডার মেজর জুন্নুরাইন বিন আলম স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, আট বছর আগে আজিদা বেগমের সঙ্গে বিয়ে হয় ইদ্রিস আলীর। বিয়ের পর থেকে তাদের মধ্যে নানা বিষয় নিয়ে পারিবারিক কলহ চলে আসছিল। এর জেরেই স্ত্রীর ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে তার এক সহযোগীর সহায়তায় স্ত্রীকে হত্যার পরিকল্পনা করে অভিযুক্ত স্বামী। পরে ২০ এপ্রিল জৈনা বাজার নগরহালা এলাকায় ভাড়া বাড়িতে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করে স্বামী ইদ্রিস আলী। এ সময় তার সহযোগী রহমত আলী তার স্ত্রীর মুখে বালিশ চাপা দিয়ে রাখে। এর পর তারা ঘরের মেঝেতে রক্তমাখা মরদেহ ফেলে রেখে ঘরের বাহির থেকে তালা লাগিয়ে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে দুই দিন পর পুলিশ অর্ধগলিত পচা লাশ উদ্ধার করে। প্রতিবেশীরা ঘরের ভিতর থেকে পচা দুর্গন্ধ পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ তালা ভেঙে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। 
 
শ্রীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আকবর আলী খান বলেন, গ্রেপ্তারকৃত দুজনকে র‌্যাব সদস্যরা শ্রীপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। এ বিষয়ে পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ নেয়ার প্রস্তুতি চলছে।  

উল্লেখ্য গত ২১ এপ্রিল রবিবার সকালে উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের নগরহাওলা গ্রামের বাবুল খানের ভাড়া বাড়ি থেকে অর্ধগলিত আদিজা বেগমের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছিল পুলিশ। পুলিশ ধারনা করেছিল, আরও তিন চারদিন আগে ওই নারী খুনের শিকার হয়েছিল। এ ঘটনার পর থেকে স্বামী পলাতক ছিল।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত