সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

পুলিশ ও চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকের সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা

আপডেট : ০৩ মে ২০২৪, ০৮:২৫ পিএম

পাবনার সুজানগরে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থক ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান শাহিনুজ্জামান শাহিনের সমর্থক মতিন শেখকে (৫০) প্রধান আসামী করে ৪ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতদের আসামি করে মামলা করা হয়েছে। শুক্রবার (৩ মে) রাতে সুজানগর থানায় পুলিশ বাদী হয়ে এ মামলাকরেন। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পাবনার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার ( সুজানগর সার্কেল) রবিউল ইসলাম। শুক্রবার (৩ মে) এই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে বৃহস্পতিবার আটক ২ জনকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ দু’জন পুলিশি হেফাজতে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২ মে) বিকেলে ভায়না ইউনিয়নের কালীর মোড়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও আনারস প্রতীকের উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহীনুজ্জামানের সমর্থকদের সঙ্গে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মোটর সাইকেল প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল ওহাবের সমর্থকদের বাকবিতণ্ডা হয়। এরই জের ধরে সন্ধ্যায় শাহীনুজ্জামানের সমর্থকরা ভায়না ইউপি চেয়ারম্যান আমিন উদ্দিনের বাড়িতে হামলার চেষ্টা করলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় পুলিশের সাথে শাহীন সমর্থকদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ বাঁধে। 

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এক পর্যায়ে পুলিশ গুলি ছুঁড়লে ভায়না গ্রামের বাদশা প্রামাণিক ও মতিন শেখ গুলিবিদ্ধ হয়। এ সময় আহত হয় আরও কয়েকজন। গুলিবিদ্ধদের আটক করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা করে পুলিশ। এরপর ঘটনাস্থল থেকে আটক ৪ জনের নাম উল্লেখসহ অনেককে অজ্ঞাত আসামি করে রাতে মামলার পর শুক্রবার গ্রেপ্তার দেখিয়ে দু’জনকে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

সুজানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জালাল উদ্দিন বলেন, বৃহস্পতিবার নির্বাচনী প্রচারণায় বিশৃঙ্খলাকে  কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যেই উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পুলিশ পরিস্থিতির ওপর কড়া নজর রাখছে। আইন ভঙ্গের চেষ্টা হলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশী অভিযান চলছে বলেও জানান তিনি।

 

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত