মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে যা বললেন সাবেক সেনাপ্রধান আজিজ

আপডেট : ২১ মে ২০২৪, ০২:৩৯ পিএম

দুর্নীতিতে সম্পৃক্ততার অভিযোগে বাংলাদেশের সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অব.) আজিজ আহমেদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এর ফলে আজিজ আহমেদ ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবেন না। 

এ বিষয়ে একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের সঙ্গে কথা বলেছেন সাবেক এই সেনাপ্রধান। তিনি বলেন, প্রথমে আমি বলব আমি অবাক হয়েছি। আমার এক বন্ধু আমাকে কপিটা পাঠিয়েছে; সকালে দেখেছি। ২০২১ সালের ১ ফেব্রুয়ারি আল জাজিরাতে অল দ্য প্রাইম মিনিস্টার ম্যান নামে একটি ‘নাটক’ মঞ্চস্থ হয়েছিল। সেখানে মিলিটারি কন্ট্রাক্ট ও আমার ভাইদের প্রসঙ্গ ছিল। আমি এখানে (মার্কিন নিষেধাজ্ঞায়) দেখতে পাচ্ছি সেই অনুষ্ঠানে যে অভিযোগ দুইটা আনা হয়েছিল সেটার সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে সম্পৃক্ত।

তিনি বলেন, প্রথম অভিযোগ হলো আমি আমার পদ পদবি ব্যবহার করে আমার ভাইকে বিচার এড়াতে সহায়তা করে দুর্নীতি করেছি। দ্বিতীয়টি হলো, আমি সেনা প্রধান হিসেবে আমার ভাইকে একটি সামরিক কন্ট্রাক্ট দিয়ে আমি ঘুষ নিয়েছি; আমি আরেকটা দুর্নীতি করেছি। 

এসব অভিযোগের জবাবে সাবেক সেনাপ্রধান বলেন, আমার সেই ভাই আমি সেনাপ্রধান হওয়ার অনেক আগে থেকেই বিদেশে। নিশ্চই সে বৈধ পাসপোর্ট নিয়েই সে বিদেশ গিয়েছে। সেখানে তাঁর দেশ থেকে চলে যাওয়ার বা দেশের প্রচলিত আইনকে ফাঁকি দেওয়ায় আমি আমার পদ-পদবি ব্যবহার করেছি এ অভিযোগ আমি মেনে নিচ্ছি না। এটা সঠিক না। 

ভাইকে সামরিক কন্ট্রাক্ট দেওয়ার বিষয়ে জেনারেল আজিজ বলেন, কেউ যদি প্রমান করতে পারে আমি চার বছর বিজিবি ও তিন বছর সেনাপ্রধান থাকাকালীন আমার কোন ভাইকে বা কোন আত্মীয়কে কোন সামরিক কন্ট্রাক্ট দিয়েছি তবে আমি যেকোন বিচার মেনে নিতে প্রস্তুত আছি। শুধু তাই নয়, এই প্রতিষ্ঠান দুটিতে তাদের কোনো লাইসেন্স ছিল সেটার প্রমাণ দিতে পারলেও আমি সব শাস্তি মেনে নেব।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রমাণ পাওয়ার বিষয়ে সাবেক সেনাপ্রধান বলেন, এটা তাদের বিষয়। তারা প্রমাণ দিক। আমি আমার কোন ভাইকে কন্ট্রাক্ট দিয়েছি।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত