শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

নারীর কাছ থেকে কার্তিকের নামে ৮২ লাখ টাকা নিয়েছেন প্রতারক!

আপডেট : ০৯ জুন ২০২৪, ০৭:৪৬ পিএম

স্বপ্নের নায়ক-নায়িকার সঙ্গে দেখা করতে কে না চায়। অনেক সাধারণ মানুষই একেবারে উন্মত্তের মতো নিজের প্রিয় অভিনেতার সঙ্গে দেখা করার জন্য মুখিয়ে থাকেন। তবে সেই মোহ অনেকের জন্য কাল হয়ে দাঁড়ায়।

এবার ঠিক এমনই এক ঘটনা ঘটেছে কার্তিক আরিয়ানের এক ভক্তের সঙ্গে। অভিনেতার সঙ্গে দেখা করিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে এক নারীর কাছ থেকে ৮২ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। কার্তিক আরিয়ানকে প্রচণ্ড পছন্দ করেন সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে প্রতারণা করা হয়েছে ঐশ্বর্যা নামের এক নারীর সঙ্গে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদন অনুযায়ী, কৃষ্ণা শর্মা নামে ওই প্রতারক গোরেগাঁওয়ের বাসিন্দা। ২০২২ সালে তিনি ঐশ্বর্যা নামের মহিলা থেকে ৮২.৭৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। ২৯ বছর বয়সী ওই প্রতারক ঐশ্বর্যাকে বলেন, তিনি যদি ‘লাভ ইন লন্ডন’ নামক ছবিতে বিনিয়োগ করেন, তাহলে কার্তিক আরিয়ানের সঙ্গে দেখা করানোর সুযোগ করে দেবেন।

আম্বোলি থানা-পুলিশ ইতিমধ্যেই গ্রেপ্তার করেছে কৃষ্ণা শর্মাকে। জানা যায়, এর আগেও তিনি এ ধরনের অনেক প্রতারণার কাজ করেছেন। তার বিরুদ্ধে আম্বোলি, ভাকোলা, মুম্বাই বিমানবন্দর, দিল্লির কনট প্লেসের থানায় একাধিক অভিযোগ রয়েছে। 
আম্বোলি থানার এক অফিসার জানান, ২০২২ সালের এপ্রিল থেকে ২০২৩ সালের জুলাই পর্যন্ত ওই প্রতারক ঐশ্বর্যার থেকে ৮২.৭৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। কয়েক ধাপে ঐশ্বর্যা ওই টাকা দিয়েছিলেন, যা তাকে প্রোডাকশনের কাজে লাগানো হচ্ছে বলে জানানো হয়। 

ঐশ্বর্যা যে অভিযোগ করেছেন তাতে লিখেছেন, ‘ওই ব্যক্তি (অভিযুক্ত কৃষ্ণা শর্মা) কোনো সাক্ষাতের ব্যবস্থা করেননি এবং আমার থেকে টাকার পর টাকা নিতে থাকেন এবং যখন আমি তা ফেরত চাই হঠাৎ উধাও হয়ে যান।’

অভিযোগ করার পর এ ঘটনায় পুলিশের এক বিশেষ দল তৈরি হয়। তদন্ত চালিয়ে বেঙ্গালুরুর এক হোটেলে কৃষ্ণাকে আটক করে ক্রাইম শাখা। তার সঙ্গে আটক করা হয় আরও তিন সহযোগী। একটি দল তৈরি করে চেন্নাই, দিল্লি ও মুম্বাইয়ের একাধিক মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছিলেন তারা।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত