মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

গুগলের নতুন দুই জেনারেটিভ টুল

আপডেট : ১২ জুন ২০২৪, ১২:৫৯ এএম

গুগল ডেভেলপার কনফারেন্সে নতুন দুটি এআই প্রযুক্তির কথা ঘোষণা করেছে । একটি ভিও অন্যটি ইমাজেন ৩। গত ২ বছরে বেশ কিছু ভিডিও এবং ইমেজ জেনারেটর প্রযুক্তির অগ্রগতি হয়েছে। তবে এই প্রথম গুগল অফিশিয়ালি এই দুটি জেনারেটিভ টুল নিয়ে আসার কথা জানিয়েছে। 

গুগল ভিও : ভিও একটি টেক্সট থেকে ভিডিওতে রূপান্তর করার টুল। এই টুল দিয়ে ১ মিনিটের বেশি ১০৮০পি রেজুলেশনের ভিডিও তৈরি করা যাবে। অর্থাৎ ভিডিওটি কেমন হবে সে সম্পর্কে বিস্তারিত সঠিক প্রম্পট অবলম্বনে সম্পূর্ণ এআই জেনারেটেড ভিডিও তৈরি করা যাবে। গুগল জানিয়েছে এই জেনারেটেড ভিডিও ভবিষ্যতে কী প্রভাব ফেলতে পারে সেটি মাথায় রেখেই অ্যান্ড্রয়েড ১৫-এর সঙ্গে এই প্রযুক্তিকেও প্রাধান্য দিচ্ছে। শুধু তাই নয়, ইমাজেন ৩ অর্থাৎ ইমেজ জেনারেটিভ টুলকে তারা সংস্থার সবচেয়ে অত্যাধুনিক টুলস হিসেবে নিয়ে আসবে। কনফারেন্সে তারা জানায়, আমরা অত্যাধুনিক প্রযুক্তি তৈরিতে কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। পাশাপাশি টুলগুলো তাদের কার্যক্রম ঠিকভাবে করছে কি না তাও নিশ্চিত করছি। ভিও আমাদের সর্বোচ্চ উন্নত ভিডিও জেনারেটিভ মডেল। চলচ্চিত্র নির্মাতা ডোনাল্ড গ্লোভার এবং তার ক্রিয়েটিভ স্টুডিও ‘গিলগা’র সঙ্গে  অংশীদারত্বে তৈরি প্রজেক্ট গুগল ভিও।

গুগল ভিও ফিচার : গুগল ভিও ১০৮০ পিক্সেলের হাই রেজুলেশনের টাইম  লেন্স, বায়বীয় শট, বিভিন্ন সিনেম্যাটিক শট বুঝতে সক্ষম। তাছাড়া সিনেম্যাটিক ইফেক্ট, ক্যারেক্টার তৈরি, অর্ধেক এডিট করা ভিডিও সম্পূর্ণ করাসহ এটি মানুষের ভাষার সূক্ষ্মতা বোঝায়। প্রম্পট অনুযায়ী ভিডিওর টোন এবং মুড সেট করতে পারবে। ফ্রেম পরিবর্তনের সঙ্গে আগের জেনারেটিভ মডেলগুলোতে যেমন বিভিন্ন অবজেক্ট ফ্লিকার করত তা আরও স্থিতিশীল করবে এই নতুন মডেল।

কীভাবে ব্যবহার করবেন ভিও : গুগল ভিও এখনো জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত না। তাদের আরলি এক্সেস ভার্সনটি শুধু নির্দিষ্ট কিছু গ্রুপ যাচাইকরণের জন্য ব্যবহার হচ্ছে। সবার আগে গুগল ভিও ব্যবহার করতে চাইলে গুগলের ওয়েটলিস্টে আবেদন করতে হবে। ভিজিট করতে পারেন গুগলের টেস্ট কিচেন ওয়েবসাইটে। সেখানে আপনার গুগল অ্যাকাউন্ট লগ ইন করে স্ক্রিনে থাকা নির্দেশনা ফলো করুন। তাদের টার্ম অ্যান্ড সার্ভিস বক্স চেক করে (Join our waitlist) ক্লিক করে টিকিট সাবমিট করতে পারেন।

ইমাজেন ৩ ফিচার : ইমাজেন ৩ গুগলের নতুন ইমেজ জেনারেটিভ টুল। গুগলের দাবি অনুসারে তাদের এই টুল লিপ ফরওয়ার্ডের মতো সুবিধা দেয়। এই ফিচারে সুবিধা হচ্ছে জেনারেটেড ছবিতে ভিজ্যুয়াল ভুলত্রুটি কেটে সঠিক বিবরণসহ বাস্তবসম্মত ছবি তৈরি করতে সহায়তা করবে। ইমাজেন ৩ এমনভাবে তৈরি হচ্ছে যাতে ব্যবহারকারী লেখার যথার্থতা বুঝতে সক্ষম হন। ইমাজেন ৩ এর রেন্ডারিং ফিচার আরও প্রসারিত থাকবে যাতে বিবরণীর হুবহু ছবি তৈরি করতে পারে। ভিও যদি প্রত্যাশা অনুযায়ী ভিডিও ট্রান্সফর্মিং ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখতে সক্ষম হয় তাহলে চলচ্চিত্র শিল্প বেশ কিছু দিকে অগ্রাধিকার হবে।

   
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত