সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

সকালে নেওয়ার কথা ছিল হাটে, রাতে আগুনে পুড়ল ১৩ গরু

আপডেট : ১২ জুন ২০২৪, ১১:৫৩ এএম

মাদারীপুরের শিবচরে খামারে আগুন লেগে কোরবানির জন্য প্রস্তুত করা ১৩টি গরু ও সাড়ে ৩ হাজার মুরগি পুড়ে মারা গেছে। এতে প্রায় ৫০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ভুক্তভোগী খামারির। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে শিবচর উপজেলার উমেদপুর ইউনিয়নের কালিখোলা এলাকার মিলন মুন্সির খামারে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গতরাতে মিলন মুন্সির গরুর খামারে প্রথমে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ওই খামারে ১৪টি গরু বাঁধা ছিল। আগুনের টের পেয়ে রশি কেটে দিলে একটি গরু বেঁচে যায়। কিন্তু মুহূর্তের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়লে খামারে থাকা বাকি ১৩টি গরু পুড়ে মারা যায়। এ সময় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে পাশের খামারে থাকা সাড়ে ৩ হাজার মুরগী মারা যায়।

খামারের মালিক মিলন মুন্সি জানান, গত বছর গরুগুলো কিনেছিলাম। এ বছর কোরবানিতে বিক্রি করার জন্য এই গরুগুলো প্রস্তুত করা হয়েছিল। আমি অনেক কষ্ট করে গরুগুলোকে আমরা লালন পালন করেছি। গো খাদ্যের চাড়া মূল্য থাকার পরও কিছুটা লাভের আশায় আমরা গরুগুলোকে লালন পালন করেছি। আজই গরুগুলোকে বিক্রির জন্য হাটে নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু রাতেই অগ্নিকাণ্ডে গরুর খামারের ১৩টি গরু ও পাশের খামারের প্রায় সাড়ে তিন হাজার মুরগি পুড়ে মারা যায়। 

উমেদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান মুন্সী জানান, খামারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ১৩ টি গরু পুড়ে মারা গেছে। এছাড়াও খামারের সাড়ে ৩ হাজার বয়লার মুরগি পুড়ে মারা যায়। বিষয়টি নাশকতা না দুর্ঘটনা স্থানীয় প্রশাসনের কাছে তদন্তের জোর দাবি জানিয়েছেন তিনি।

শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি সুব্রত গোলদার বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত