বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ডিপজলের ১০ লাখ টাকা দান নিয়ে প্রশ্ন তুললেন জয়

আপডেট : ২১ জুন ২০২৪, ০২:৩৪ পিএম
চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে শিল্পী ও কলাকুশলীদের জন্য এবারের ঈদুল আজহায় তিনটি গরু কোরবানি দেয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল। 
 
তবে শেষ মুহূর্তে সেটা আর সম্ভব হয়নি৷ কারণ, কোরবানির দুই দিন আগে ডিপজলের বড় ভাই চলচ্চিত্র প্রযোজক-পরিবেশক সমিতির সাবেক সভাপতি হাজি মো. শাহাদাৎ হোসেন ওরফে বাদশা মারা যান। ভাইয়ের মৃত্যুতে ভেঙে পড়েন এই অভিনেতা। পরিকল্পনামাফিক শিল্পীদের জন্য গরু কোরবানি দিতে পারেননি। 
 
যে কারণে কোরবানির পরে সহকর্মীদের নগদ ১০ লাখ টাকা ঈদ উপহার দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন এই অভিনেতা। বুধবার (১৯ জুন) ডিপজলের বড় ভাই বাদশার মিলাদ অনুষ্ঠিত হয় এফডিসির মসজিদে। এরপর সেখানে উপস্থিত শিল্পীদের নিজ হাতে ঈদ উপহার তুলে দেন চলচ্চিত্রের ‘দানবীর’ খ্যাত তারকা। 
 
শিল্পীদের ঈদ উপহার দেওয়ার সেই মুহূর্ত ভিডিও ধারণ করে ডিপজলের ফেসবুক পেজ থেকে প্রকাশ করা হয়। যে বিষয়টি ভালোভাবে দেখছেন না অভিনেতা ও উপস্থাপক শাহরিয়ার নাজিম জয়। 
 
তিনি মনে করেন, যেসব শিল্পীরা সেখানে উপস্থিত হয়ে লাইন ধরে টাকা নিয়েছেন সেই দৃশ্য ভিডিওতে ধারণ করে সকলের সামনে তুলে ধরা ঠিক হয়নি। 
 
ডিপজলের টাকা উপহার দেওয়া সেই ভিডিওর কিছু অংশ প্রকাশ করে ফেসবুকে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে জয় লিখেছেন, শিল্পী সমিতি ঈদ উপহার দিচ্ছেন, খুব প্রশংসনীয় কাজ। শিল্পীরা সাধারণ মানুষের কাছে অসাধারণ তাদের অভিনয়ে গুনে। তাদের পর্দার উপস্থিতিতে। এজন্যই হলে গিয়ে যুগে যুগে মানুষ সিনেমা দেখেছে, শিল্পীদের দেখেছেন। 
 
এরপর শিল্পী সমিতির কর্মকাণ্ডের প্রশ্ন তুলে জয় লেখেন, শিল্পী সমিতি যাদের উপহার দিচ্ছেন তাদের দুই একজনকে আমি চিনেছি। তারা শিল্পী। লাইন ধরে টাকা নিচ্ছেন, এই দৃশ্যটা ভিডিও ধারণ করে দেখাতে গিয়ে ওই শিল্পীদের আর্থিক দুর্বলতা সকলকে জানিয়ে দেওয়া কি দরকার ছিল? এই ভিডিও করাটা উচিত হয়েছে? 
 
জয় লেখেন, প্রশংসনীয় কাজ অনেক সময় বুদ্ধির অভাবে সমালোচনার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এই উপহারটা ভিডিও না করেও দেওয়া যেত। টাকা সবারই দরকার। কিন্তু টাকা নিতে গিয়ে বা পেতে গিয়ে লজ্জিত হওয়ার মতো অপমান আর কিছুতে নেই। 
 
ভিডিওতে ডিপজলকে বলতে শোনা যায়, ‘সবাই জানেন আমার বড় ভাই মারা গেছেন। যার জন্য গরু কিনতে পারিনি। গরু কেনার ১০ লাখ টাকা শিল্পী সমিতির ফান্ডে দিয়েছি। কার্যনির্বাহী কমিটি এই টাকা সবার মধ্যে বিলিয়ে দিবে। উপস্থিত যারা ছিলেন আমি নিজ হাতে তাদের এ উপহার দিয়েছি। উপহার পেয়ে তারা খুশি।’
 
এই অভিনেতা আরও বলেন, ‘আমি আগেও বলেছি এখনো বলছি- আমি শিল্পী সমিতিতে নিতে আসিনি দিতে এসেছি। চলচ্চিত্রের কিভাবে ভালো হয় তা নিয়েই কাজ করব৷ আমি চলচ্চিত্র ও শিল্পীদের মঙ্গল চাই। সবাই আমার ভাইয়ের জন্য দোয়া করবেন।’
 
জানা গেছে, এদিন উপস্থিত ৩০০ জন শিল্পীকে এ উপহার তুলে দেওয়া হয়েছে৷ এর মধ্যে শিল্পী সমিতির সদস্য, এফডিসির নিরাপত্তা কর্মী এবং এফডিসির কর্মচারীদের মধ্যে সাড়ে ৬ লক্ষ টাকা প্রদান করা হয়েছে। যারা ঈদ করতে গ্রামে গেছেন তাদের বিকাশের মাধ্যমে বাকি উপহার পাঠানো হবে।
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত