সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

পথ হারিয়ে জঙ্গলে ভয়ঙ্কর ১০ দিন, যেভাবে বেঁচে ফিরলেন যুবক

আপডেট : ১০ জুলাই ২০২৪, ০৪:৩৪ পিএম

উত্তর ক্যালিফোর্নিয়ার সান্টা ক্রুজের পাহাড়ি রাস্তায় হাঁটতে বেরিয়েছিলেন বছর চৌত্রিশের লুকাস ম্যাকক্লিশ নামে এক যুবক। মাত্র তিন ঘণ্টার জন্য হাঁটতে বেরিয়েছিলেন তিনি। চেনা পরিচিত রাস্তায় হাঁটতে গিয়ে যে তার জীবনে এমন বিপদ ঘনিয়ে আসবে, তা স্বপ্নেও ভাবতে পারেননি তিনি। 

নিউ ইয়র্ক পোস্টের খবরে বলা হয়, সান্টা ক্রুজের পাহাড়ি রাস্তায় হাঁটতে বেরিয়ে কিছুক্ষণ চলার পর দিক্‌ভ্রান্ত হয়ে পথ হারিয়ে ফেলেন। গত ১১ জুন পথ চলা শুরু করেছিলেন লুকাস। যাত্রাপথ মাত্র তিন ঘণ্টার হওয়ায় সঙ্গে ছিল না বিশেষ কিছুই। এমনকি, মোবাইল ফোনও ছিল না সঙ্গে। লুকাসের পরিবারের লোকেরাও তার নিঁখোজ হওয়ার বিষয়ে জানতেন না কিছুই। ১৬ জুন পারিবারিক নৈশভোজে লুকাস যোগ না দেওয়ায় তারা চিন্তায় পড়ে যান। খবর দেওয়া হয় পুলিশে। শুরু হয় খোঁজ।

পথ হারিয়ে জঙ্গলে ৯ রাত, ১০ দিন কাটানোর পর লুকাসের খোঁজ মেলে। শেরিফের অফিস থেকে জানানো হয়, অনেকেই জঙ্গল থেকে সাহায্যের জন্য চিৎকার শুনতে পেয়েছেন বলে জানিয়েছিলেন। কিন্তু ঠিক কোন জায়গা থেকে সেই শব্দ আসছিল তা বোঝা যাচ্ছিল না। লুকাসকে খুঁজতে ড্রোনের সাহায্য নিয়েছিল সান্টা ক্রুজ শেরিফের অফিস। কে-৯ স্নিফার কুকুরের সাহায্যও নেওয়া হয়েছিল।

পরে উদ্ধারকারীদের দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন লুকাস। তত দিনে ১৩ কেজি ওজন কমে গিয়েছে তার। প্রাথমিক চিকিৎসার পর তার শরীরে বড় কোনো আঘাতের চিহ্ন মেলেনি। লুকাস বলেন, সারা বছরের হাঁটা এই ১০ দিনে হেঁটে নিয়েছি। ঝর্না থেকে জুতোয় ভরে জল খেয়েছি। বুনো ফল খেয়ে দিন কাটিয়েছি। সাহায্যের জন্য চেঁচিয়ে গলা ধরা গিয়েছে। আমি ক্লান্ত।

লুকাসের অ্যালবিনো রয়েছে। দিনের বেলায় রোদ এড়িয়ে চলতেন তিনি। রাতে ঠাণ্ডার হাত থেকে বাঁচতে ফাঁপা গাছের গুঁড়িতেও থেকেছেন। তিনি আরও বলেন, এক দিন একটি পাহাড়ি সিংহ আমার পিছু নিয়েছিল। বেশ কিছু ক্ষণ সে আমায় অনুসরণ করে। তবে আমি তার সঙ্গে দূরত্ব বজায় রেখে চলেছিলাম।

চেনা রাস্তায় পথ হারিয়ে ফেলবেন তা ভাবতেও পারেননি লুকাস। তিনি বলেন, এই রাস্তায় আরও অনেক বার হেঁটেছি। কিন্তু সাম্প্রতিক দাবানলের ফলে যাত্রাপথের চিহ্ন মুছে যাওয়ায় রাস্তা হারিয়ে ফেলি। রোজই মনে হত রাত ৮টার মধ্যে বাড়ি ফিরে যেতে পারব। কিন্তু কখনোই বুঝতে পারিনি আমাদের পাহাড়গুলো এতটা নির্মম।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত