রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ঢাকা উত্তরে মেয়র প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ

আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৫৮ পিএম

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে উপনির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী পাঁচ প্রার্থীকে প্রতীক দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া উত্তর ও দক্ষিণ সিটির সম্প্রসারিত ৩৬টি সাধারণ ও ১২টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীদেরও প্রতীক দেওয়া হয়েছে। গতকাল রবিবার সকালে উত্তর সিটির রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কাশেম ও দক্ষিণের রিটার্নিং কর্মকর্তা রকিব উদ্দিন মণ্ডল প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেন।

উত্তরে আওয়ামী লীগের আতিকুল ইসলাম নৌকা, জাতীয় পার্টির শাফিন আহমেদ লাঙ্গল, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) মো. আনিসুর রহমান দেওয়ান আম, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক পার্টির (পিডিপি) শাহীন খান বাঘ এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ আবদুর রহিম প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের দেয়াল ঘড়ি প্রতীকে লড়বেন। প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেওয়ায় জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের (এনডিএম) প্রার্থী ববি হাজ্জাজকে প্রতীক দেওয়া হয়নি।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ এনে বর্তমান সরকার ও নির্বাচন কমিশনের অধীনে ঢাকা সিটিসহ আর কোনো নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে বিএনপিপ্রধান বিরোধী মোর্চা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলীয় জোট। একই অভিযোগে এ নির্বাচনে প্রার্থী দেয়নি ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও বাম গণতান্ত্রিক জোট।

প্রতীক বরাদ্দের সময় প্রার্থী ও প্রতিনিধিদের উদ্দেশে উত্তরের রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কাশেম বলেন, ‘প্রতীক বরাদ্দের মাধ্যমে আজ থেকে সবাই নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে বিবেচিত হবেন। এ কারণে এখন থেকে নির্বাচনী আচরণবিধি কঠোরভাবে মেনে চলবেন।’ এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, রবিবার থেকেই প্রার্থীরা প্রচার চালাতে পারবেন। তবে ভোটের ৩২ ঘণ্টা আগে প্রচারকাজ শেষ করতে হবে।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ঢাকা উত্তরে মেয়র এবং উত্তর ও দক্ষিণ সিটির সম্প্রসারিত ৩৬টি ওয়ার্ডে ভোট হবে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি। কাউন্সিলর মারা যাওয়ায় একই দিন উত্তরের ২০ নম্বর ওয়ার্ডেও ভোট হবে; তবে ৯ নম্বর ওয়ার্ডে মুজিব সরোয়ার মাসুম বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাওয়ায় সেখানে ভোটগ্রহণের প্রয়োজন হবে না।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত