রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

আগুয়েরোর হ্যাটট্রিক, চেলসিকে বিধ্বস্ত করল ম্যানসিটি

আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০১:১৭ এএম

আগুনে উত্তাপের এক ম্যাচ হওয়ার কথা ছিল ইতিহাদ স্টেডিয়ামে। দর্শকরা ছিল সেটিরই অপেক্ষায়। লড়াইটা যে দুই ইংলিশ জায়ান্ট ম্যানচেস্টার সিটি ও চেলসির।

কিন্তু সেই ম্যাচটাই কেমন একতরফা করে ফেললেন সার্জিও আগুয়েরো। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড করলেন রেকর্ড গড়া হ্যাটট্রিক। জোড়া গোল করলেন রহিম স্টার্লিং। তাতে চেলসিকে রীতিমতো বিধ্বস্ত করে ছাড়ল পেপ গার্দিওলার দল।

রোববার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে চেলসিকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। আগের দিন শীর্ষে উঠে যাওয়া লিভারপুলকে সিটির জন্য স্থানটা তাই ছেড়ে দিতে হয়েছে। ২৭ খেলায় ২১ জয়, ২ ড্র ও ৪ হারে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে এখন ম্যানসিটি। এক ম্যাচ কম খেলে সমান পয়েন্ট নিয়েও দ্বিতীয় স্থানে লিভারপুল।

চেলসিকে পেছনে ঠেলে আগের দিন টেবিলের চার নম্বর জায়গাটা নিজেদের করেছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। সেই জায়গা ফিরে পেতে এদিন জিততেই হতো চেলসিকে। লড়াইটা এ কারণেই জমজমাট হওয়ার বার্তা দিচ্ছিল। কিন্তু চেলসি যে দাঁড়াতেই পারল নাই। উল্টো এই হারে টেবিলের ছয় নম্বরে চলে গেছে দলটি। ২৬ ম্যাচে ৫০ পয়েন্ট তাদের। সমান পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে আর্সেনাল। আর ৫১ পয়েন্ট নিয়ে চারে ম্যানইউ।

যে কোনো প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ২৭ বছর পর এত বড় হারের লজ্জা পেল চেলসি। ১৯৯১ সালের নটিংহ্যাম ফরেস্টের বিপক্ষে ৭-০ গোলে হারে ইংলিশ ক্লাবটি।

এদিন ম্যাচের ২৫ মিনিটেই ৪-০ গোলের লিড নিয়ে নেয় প্রিমিয়ার লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি। স্টার্লিং যখন প্রথম গোলমুখ খুললেন ম্যাচের বয়স তখন মাত্র ৪ মিনিট। এরপর ১৩ মিনিটে আগুয়েরো গোলের মুখ খোলেন। ছয় মিনিটের ব্যবধানে ফের গোল আগুয়েরোর। তাতে ৩-০ গোলের লিড পায় সিটি। ২৫ মিনিটে জার্মান মিডফিল্ডার ইলকাই গিনদোয়ানেরে গোলে ৪-০ তে এগিয়ে যাওয়া সিটির। সেই ব্যবধানেই বিরতিতে যায় দলটি।

বিরতি থেকে ফিরতেই পেনাল্টি উপহার পায় তারা। ম্যাচের ৫৬ মিনিটে সেই স্পট কিক থেকে গোল করে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন আগুয়েরো। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে আগুয়েরোর এটি ১১তম হ্যাটট্রিক। যা অ্যালন শিরেরার সমান। দুজন এখন যৌথভাবে প্রিমিয়ার লিগে সর্বোচ্চ হ্যাটট্রিকের মালিক। ৫৬ মিনিটে ৫-০ গোলে এগিয়ে থাকা ম্যানসিটি চেলসিকে আর কত গোল দেয় সেটিই তখন হয়ে উঠে সবার জানার প্রধান আগ্রহ। অবশ্য আর একটি গোলই করতে পেরেছে সিটি। ৮০ মিনিটে সেই গোল স্টার্লিংয়ের। যার পরেই এদিন গোল উৎসবের শুরু সিটির। তবে এদিন একেবারেই ছায়া হয়ে থাকলেন হ্যাজার্ড-হিগুয়াইনরা।

চেলসিতে হিগুয়েইন থাকায় ম্যাচটায় আগুয়েরো-হিগুয়েইন দ্বৈরথের বিষয়টিও ছিল। দুই আর্জেন্টাইনের লড়াইয়ে রাজকীয় কীর্তি আগুয়েরোর। যার আলোয় একেবারেই যেন ঢাকা পড়ে থাকলেন হিগুয়েইন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত