শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বিকাশ অ্যাপে সিটি ব্যাংকের ঋণে ‘পে-লেটার’ সেবা চালু

সাত দিন ইন্টারেস্টবিহীন কেনাকাটার সুযোগ

আপডেট : ০৪ এপ্রিল ২০২৪, ১২:১৯ এএম

জরুরি প্রয়োজনে কেনাকাটাকে আরও সহজ করে দিতে প্রথমবারের মতো ডিজিটাল ক্ষুদ্র ঋণের আওতায় ‘পে-লেটার’ নামের বিশেষ জামানতবিহীন ক্ষুদ্র ঋণ সেবা যৌথভাবে চালু করল সিটি ব্যাংক ও বিকাশ। অ্যাকাউন্টে টাকা না থাকলেও গ্রাহক এখন প্রয়োজনীয় পণ্য কিনে বিকাশ অ্যাপ থেকেই সিটি ব্যাংকের এ বিশেষ ঋণ নিয়ে সরাসরি মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন। সাত দিনের মধ্যে এই অর্থ পরিশোধ করলে গ্রাহককে দিতে হবে না কোনো ইন্টারেস্টও।

প্রাপ্তির যোগ্যতা সাপেক্ষে গ্রাহক ৫০০ থেকে ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত একটি সমন্বিত ঋণসীমা পাবেন যেখান থেকে তারা তাৎক্ষণিকভাবে পে-লেটার এবং ডিজিটাল ক্ষুদ্রঋণ উভয় সেবাই গ্রহণ করতে পারবেন।

আর্থিক অন্তর্ভুক্তিকে ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে, প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জরুরি এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কেনার ক্ষমতা বাড়ানোর উদ্দেশ্যে এ পে-লেটার সেবা চালু করা হয়েছে। সারা দেশে ছয় লাখের বেশি মার্চেন্ট পয়েন্ট থেকে বিকাশ অ্যাপ দিয়ে কেনাকাটা করে পে-লেটার সেবা ব্যবহারের সুযোগ পাবেন গ্রাহক।

এই ঋণের জন্য বিবেচ্য গ্রাহক তার প্রয়োজনীয় পণ্য বা সেবা নিয়ে মার্চেন্টের কিউআর (ছজ) কোড স্ক্যান করার পর অথবা সরাসরি মার্চেন্ট নম্বর বসিয়ে, টাকার পরিমাণ বসাবেন এবং পে-লেটার নির্বাচন করবেন। পরবর্তী স্ক্রিনে তাকে সাত দিনে ইন্টারেস্টবিহীন পরিশোধ অথবা তিন-ছয় মাসে পরিশোধের যেকোনো একটি পদ্ধতি নির্বাচন করতে হবে।

সাত দিনে ইন্টারেস্টবিহীন পরিশোধ পদ্ধতিতে গ্রাহক যদি সপ্তম দিনের মধ্যে সম্পূর্ণ অর্থ পরিশোধ না করতে পারেন, তাহলে পে-লেটার-টি তিন মাসের ক্ষুদ্রঋণে পরিণত হয়ে যাবে এবং তাতে বার্ষিক ৯ শতাংশ ইন্টারেস্ট প্রযোজ্য হবে। এদিকে ছয় মাসে পরিশোধ পদ্ধতিতে গ্রাহককে ২০ শতাংশ ডাউনপেমেন্ট শুরুতেই দিতে হবে এবং বাকি ৮০ শতাংশ পে-লেটারের মাধ্যমে সমান কিস্তিতে ভাগ হয়ে প্রতি মাসের নির্দিষ্ট তারিখে স্বয়ংক্রিয়ভাবে পরিশোধ হয়ে যাবে। এ ক্ষেত্রেও বার্ষিক ৯ শতাংশ ইন্টারেস্ট প্রযোজ্য হবে। উভয় ক্ষেত্রেই ০.৫৭৫ শতাংশ ভ্যাটসহ প্রসেসিং ফি যুক্ত থাকবে।

সিটি ব্যাংক ও বিকাশের হাত ধরেই প্রথম ডিজিটাল ক্ষুদ্রঋণের যুগে প্রবেশ করেছে বাংলাদেশ। ২০২১ সালে চালু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় আট লাখ বার ডিজিটাল ক্ষুদ্রঋণ নিয়েছেন আড়াই লাখের অধিক গ্রাহক, টাকার অঙ্কে যার পরিমাণ প্রায় ৭৫০ কোটি।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত