সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

শহরের নিরাপত্তা রক্ষাই পুলিশের ঈদ

আপডেট : ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:২৭ পিএম

ঈদের ছুটিতে গ্রামে পাড়ি দিয়েছেন শহরের অনেক মানুষ। ফলে রাজধানী অনেকটাই ফাঁকা। এই সময় যাতে কেউ কোনো নাশকতা, চুরি, ছিনতাই, কিশোর গ্যাং অপরাধ কিংবা কোনো অন্তর্ঘাতমূলক সহিংসতা করতে না পারে সেজন্য ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ নানা ধরনের নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। ফলে পুলিশের জেষ্ঠ কর্মকর্তা থেকে শুরু করে সব সদস্যদের ঈদ কোটেছে নিরাপত্তায় নিয়োজিত থেকে। পরিবারের সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করার সময়টুকু দিচ্ছেন শহর নিরাপদ রাখার ভাবনায়।

রাজধানীর অন্যান্য এলাকার মতো লালবাগ ও কামরাঙ্গীরচর থানা পুলিশ তৎপর রয়েছে নানা নিরাপত্তা পদক্ষেপে। এর মধ্যে রয়েছে-নিরাপত্তা চেকপোস্ট কার্যক্রম, মোটরসাইকেল পেট্রোল (হোন্ডা মোবাইল), ফুট পেট্রোল, সারভেইল্যান্স, কেপিআইসহ বিভিন্ন গুরত্বপূর্ণ স্থাপনাসমূহে বিশেষ নিরাপত্তা, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহে সমন্বয়মূলক নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

লালবাগ থানা এলাকার বেড়িবাঁধ লোহার ব্রিজের বিপরীত পাশে, লালবাগ টাওয়ার বিজিবি সিনেমা হলের বিপরীত পাশে, বেবি আইসক্রিম মোড় ও কেল্লার মোড়ে নিরাপত্তা চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশী কার্যক্রম চালাচ্ছে লালবাগ থানা পুলিশ। এছাড়াও, কামরাঙ্গীরচরের লোহার ব্রিজ, রনী মার্কেট, খোলামোড়া মোড়, কোম্পানিঘাট ও কুড়ারঘাট এলাকায়ও বসানো হয়েছে নিরাপত্তা চেকপোস্ট।

লালবাগ জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. ইমরান হোসেন মোল্লা বলেন, ঈদ উপলক্ষে পুলিশের দৈনন্দিন কাজের বাইরে অতিরিক্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। চেকপোস্টকালীন দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা মোটরসাইকেল আরোহী, ক্যাপ ও মাস্ক পরিহিত অপরিচিত যুবক, কিশোর বা সন্দেহভাজন যে কোনো ব্যক্তিকে তল্লাশি করছে।

এদিকে রাজধানীর অন্য এলাকাগুলো ঘুরে দেখা যায়, গুরুত্বপূর্ণ সড়কে চেকপোস্ট বসিয়েছে পুলিশ। চেকপোস্টে আসা গাড়ি ও মানুষকে সন্দেহজনক মনে হলে তল্লাশি করা হচ্ছে। প্রধান সড়কের পাশাপাশি অলিগলিতেও টহল জোরদার করেছে পুলিশ। কিছুক্ষণ পরপর এসব এলাকায় পুলিশের টহল গাড়ি সাইরেন বাজিয়ে যাতায়াত করছে। এ সময় রাস্তায় সন্দেহজনক কিছু দেখলে তল্লাশিসহ জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান ফাঁকা ঢাকার নিরাপত্তা দিতে গত মঙ্গলবার থেকে পুলিশের চেকপোস্ট ও টহল জোরদার করা হয়েছে। ঈদের ছুটি শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত পুলিশের চেকপোস্ট ও টহল জোরদার থাকবে। দিনরাত ২৪ ঘণ্টা এই চেকপোস্ট ও টহল থাকবে পুলিশের। বিশেষ করে রাতে চুরি, ছিনতাই ও ডাকাতি প্রতিরোধে পুলিশের স্পেশাল টিম মাঠ পর্যায়ে কাজ করছে।  ঈদের ছুটিতে কোনো ধরনের অপরাধ যেন সংঘটিত হতে না পারে, সেই জন্য তৎপর রয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশ।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত