সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

কেন্দ্রে ঢুকলে হাত ভেঙে দেব- হুমকি দেওয়া দুই আ. লীগ নেতা গ্রেপ্তার

আপডেট : ২৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৫০ পিএম

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর কোনো এজেন্টকে কেন্দ্রে ঢুকতে দেওয়া হবে, ঢুকলে হাত ভেঙে নদীতে নিক্ষেপ করা হবে বলে হুমকি দেওয়া স্থানীয় দুই আওয়ামী লীগ নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার বাদী হয়ে সরিষাবাড়ি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

আজ শনিবার (২৭ এপ্রিল) দুপুর ১টার দিকে জেলা নির্বাচন কার্যালয়ের সামনে থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। পরে দুপুর আড়াইটার দিকে জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক সুজাত আলী কলেজের অধ্যক্ষ সাইদুল হাসান সাঈদ ও সদস্য এবং পিংনা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান খন্দকার মোতাহার হোসেন জয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. শফিউর রহমান, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ শানিয়াজ্জামান তালুকদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সোহেল মাহমুদ ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সোহরাব হোসাইন প্রমুখ।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আনারস প্রতীকের একজন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রফিকুল ইসলাম। তার উপস্থিতিতে দুজন কর্মী পিংনা ইউনিয়ন পরিষদের সামনে একটি পথসভায় নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করেন। তারা দুজন অন্য প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর এজেন্ট দিতে বাঁধা দেবেন এবং হাত ভেঙে যমুনা নদীতে নিক্ষেপ করাসহ নানা ধরণের উসকানিমূলক ও হুমকিস্বরূপ বিভিন্ন বক্তব্য দেন। যার একটি ভিডিও ক্লিপ আমার নজরে এসেছে এবং বিভিন্ন পত্রিকাসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। পরবর্তীতে এ বিষয়ে প্রার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়। একই সঙ্গে হুমকিদাতা দুজনের বিরুদ্ধে গতকাল শুক্রবার (২৬ এপ্রিল) সরিষাবাড়ী থানায় উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় হুমকিদাতা দুজনকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা গ্রেপ্তার করেছে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত