শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ব্যালটে সিল মারার অভিযোগে ৪ সহকারী প্রিসাইডিং অফিসারকে অব্যাহতি

আপডেট : ২৯ মে ২০২৪, ০২:২৬ পিএম

তৃতীয় ধাপে চলছে শ্রীমঙ্গল উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। বুধবার (২৯ মে) সকাল ৮টা থেকেই ভোটাররা কেন্দ্রে আসতে শুরু করলেও শুরুতে উপস্থিতি ছিল কম। তবে উপজেলার চা বাগান এলাকার ভোট কেন্দ্রগুলোতে ছিল সকাল থেকেই দীর্ঘ লাইন। চা শ্রমিকরা পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে সকাল থেকেই লাইনে দাঁড়ান। বেলা বাড়ার সঙ্গে বাড়ছে শহরের কেন্দ্র গুলোতে ভোটার উপস্থিতি।

কয়েকজন প্রিসাইডিং কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, শহরের মাতৃছায়া শিশুকানন কেজি স্কুল ভোটকেন্দ্রে সকাল ১০টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ৮৫ টি। উপজেলার কালাপুর ইউনিয়নের সিংহবীজ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে সকাল ১০টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ২৬২ টি। উপজেলার ভাড়াউড়া চা বাগানে সকাল ১০টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ৪৫০টি। দুপুর ১২টায় শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়ন ভোটকেন্দ্রে ভোট পড়েছে ১২৩৯টি। স্মার্ট ইলেকশন অ্যাপসের মাধ্যমে জানা যায়, ৪৯টি কেন্দ্রে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ২০শতাংশ ভোট পড়েছে।

অন্যদিকে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে চারজন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসারকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা। সকাল ১১টার দিকে উপজেলার শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়ন ভোটকেন্দ্র ও হাউজিং স্টেট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সেন্টার থেকে তাদের অব্যাহতি দেওয়া হয়।

তারা হলেন, শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়ন ভোটকেন্দ্রের সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার মীরা শীল, অঞ্জন দেব ও সিরাজুন নেহার চৌধুরী। হাউজিং স্টেট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার প্রসান্ত কুমার দেব। সিরাজুন নেহার চৌধুরী এখনো ভোটকেন্দ্রে রয়েছেন

সদর ইউনিয়ন ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার আমিরুল ইসলাম ও হাউজিং স্টেট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার দিপক চন্দ্র মন্ডল দেশ রূপান্তরকে বলেন, আমরা সবাইকে নির্দেশনা দিয়েছিলাম যেন ভোটার আসার আগে কেউ ব্যালটে সিল না মারেন। কিন্তু তারা আগেই সিল মেরে রেখে দিয়েছিল। পরে ম্যাজিস্ট্রেট এসে তাদের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন। এদের মধ্যে সদর ইউনিয়নের একজন এখনো দায়িত্বে রয়েছেন। অন্য সহকারী প্রিসাইডিং এলে উনাকে সরানো হবে।

এদিকে নির্বাচনকে ঘীরে প্রতিটি ভোট সেন্টারে পর্যাপ্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। সহকারী রিটার্টিং অফিসার ও শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো আবু তালেব দেশ রূপান্তরকে বলেন, আমরা শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়ন পরিষদ ভোট কেন্দ্র থেকে দায়িত্বে অবহেলার কারণে দুইজনকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে নিয়েছি। নির্বাচনের জন্য ৪ প্লাটুন বিজিবি, পুলিশ, আর্ম পুলিশ ব্যাটালিয়ন, আনসার মোতায়েন করা হয়েছে।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তিনজন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ৯ টি ইউনিয়ন একটি পৌরসভা মিলিয়ে মোট ২ লাখ ৫৪ হাজার ৪৪১ জন ভোটার রয়েছেন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত