বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

হাত-পা কেটে হাসপাতালে ছুটছেন ‘মৌসুমি কসাইরা’

আপডেট : ১৭ জুন ২০২৪, ০১:৪১ পিএম

সারাদেশে পালিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল আজহা। ঈদের নামাজ শেষে সামর্থ্যবানরা পশু কোরবানি দিচ্ছেন। এই ঈদে পশু কোরবানির জন্য রাজধানীতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে মৌসুমী কসাইদের আগমন ঘটে। দক্ষ একজন কসাই নিজের কাজের সহযোগিতার জন্য অদক্ষ ‘মৌসুমী কসাইদের সঙ্গে আনেন। বাড়তি টাকার আশায় অনেকেই দুই থেকে তিনদিনের জন্য ঢাকায় আসেন।

 

তবে মৌসুমী কসাইরা পশু কোরবানির সঙ্গে নিজেদেরও বিপত্তি ডেকে আনেন। পূর্বে অভিজ্ঞতা না থাকায় পশু কাটার সময় নিজেই আহত হচ্ছেন। সোমবার (১৭ জুন) রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে হাত-পা কাটা অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে ছুটে গেছেন মৌসুমি কসাইরা। সকাল থেকে প্রায় ৫০ থেকে ৬০ জন নতুন রোগী ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসা নিতে গেছেন। যাদের ৫২ জনই মৌসুমি কসাই বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা। 

ঢাকা মেডিকেল কলেজের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসরা জানান, নতুন রোগীদের মধ্যে ৮৬ শতাংশই মৌসুমি কসাই। সময় যত যাবে, ততই বাড়বে এরকম রোগীর সংখ্যা।

সরেজমিন দেখা গেছে, জরুরি বিভাগের মধ্যে একের পর এক রোগী আসছেন। যাদের অধিকাংশই হাত-পা কাটা রোগী। কারও হাতের অঙুল কাটা পড়েছে। কারও আবার পা কেটে গেছে। জরুরি বিভাগের মধ্যে রোগীর চাপ এত বেশি যে, রোগীর স্বজনকে ভেতরে থাকতে দিতে পারছে না কর্তৃপক্ষ। এসব রোগীদের কারও অস্ত্রোপচার করা লাগছে। কারও আবার হাত-পায়ের রক্ত পরিষ্কার করে ব্যান্ডেজ দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে।

জরুরি বিভাগে আসা অনেকের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ‘একটু অসাবধানতা হলেই ক্ষতি হয়ে যায়। কারণ মাংস কাটার যন্ত্রগুলো ঈদের জন্য নতুনকরে শান দেওয়া হয়। ফলে হাত পিছলে কিংবা একটু অসতর্কতাই হাত-পা কেটে যাচ্ছে। ভাগ্যে লেখা থাকলে হবেই।’ 

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত