বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

নিউ জিল্যান্ডে প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের হার

আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০১:৪০ পিএম

বাংলাদেশ দলের বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় এখনও পথে। বিপিএলের কারণে ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা, তামিম ইকবাল ও মোহাম্মদ সাঈফউদ্দিন দেরিতে রওনা দিয়েছেন নিউ জিল্যান্ডে। তাদেরকে ছাড়া বাকিদেরকে নিয়ে কিউইদের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে হারলেও লড়েছে বাংলাদেশ।

লিংকন ওভালে রোববার ৫০ ওভারের প্রস্তুতি ম্যাচটিতে নিউ জিল্যান্ড একাদশের কাছে ২ উইকেটে হারে বাংলাদেশ। নির্ধারিত ওভারের ২৩ বল আগে ২৪৭ রানে গুঁড়িয়ে যায় অতিথি দল। জবাবে ১১ বল বাকি থাকতেই আট উইকেট হারিয়ে ২৫১ রান করে স্বাগতিক দল।

টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামা শুরুতেই খেই হারায় বাংলাদেশ। দলীয় ৩১ রানের মধ্যেই টপ-অর্ডারের তিন জনসহ চার ব্যাটসম্যানকে হারায় তারা। প্রস্তুতি মোটেও ভালো হয়নি লিটস দাস, মমিনুল, সৌম্য সরকার ও মোহাম্মদ মিথুনের। এদের কেউই পাননি দুই অঙ্কের দেখা।

বিপর্যয়ে পড়ে যাওয়া দলকে টেনে তুলেন মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ। পঞ্চম উইকেটে তাদের জুটি থেকে আসে ১০৮ রান। দলীয় ১৩৯ রানে আউট হওয়ার আগে ৬১ বলে আট ছক্কায় ৬২ রান করেন মুশফিক।

ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে সাব্বির রহমানের সঙ্গে ৩৫ রানের জুটি গড়ে ফেরেন মাহমুদউল্লাহ। এর আগে ৮৮ বলে ১০ চারে ৭২ রানের একটি কার্যকরী ইনিংস খেলেন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।

দ্রুত গতিতে রান তুলেছেন সাব্বির। উইকেট ছাড়ার আগে ৪১ বলে ছয় চারে ৪০ রান করেন নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দলে ফেরা এই ব্যাটসম্যান।

অন্যদের মধ্যে নাঈম হাসান ২৩ বলে অপরাজিত ১৭ ও মুস্তাফিজুর রহমান ১৪ বলে ১২ রান করেন।

নিউ জিল্যান্ডের বোলারদের মধ্যে ৩৮ রানে চারটি উইকেট নেন ইয়ান ম্যাকপিক। দুটি করে উইকেট নেন অ্যান্ড্রু হ্যাজেলডাইন ও রাচিন রবিন্দ্র।

জবাবে ওপেনার জিত রাভাল ও অ্যান্ড্রু ফ্ল্যাচার দলকে দারুণ একটি শুরু এনে দেন। এই জুটিতেই জয়ের ভিত পেয়ে যায় নিউ জিল্যান্ড একাদশ। ১১৪ রানের এই জুটিতে ফাটল ধরান অফস্পিনার নাঈম হাসান। উইকেট ছাড়ার আগে ৬৩ বলে পাঁচ চারে ৫২ রান করেন রাভাল।

উইকেটের একপ্রান্ত দীর্ঘ সময় আগলে রেখে দলীয় ১৮২ রানে ফেরেন ফ্লেচার। মুস্তাফিজুর রহমানের বলে এলবিডব্লিউর শিকার হওয়ায় আট রানের জন্য সেঞ্চুরি করতে পারেননি তিনি। ১১২ বলে খেলা তার ৯২ রানের ইনিংসটিতে রয়েছে নয়টি চারের মার।

অন্যদের মধ্যে পাঁচ নম্বরে নামা ফিন অ্যালেন ৩০ রান করেন। ১৯ রান করেন ক্যাতেনে ক্লার্ক; ১৭ রান রবিন্দ্রর।

বাংলাদেশ দলের বোলারদের মধ্যে দুটি করে উইকেট নেন মুস্তাফিজুর, অধিনায়ক মেহেদি হাসান ও মাহমুদউল্লাহ। একটি করে উইকেট নেন নাঈম হাসান ও সৌম্য সরকার।

মাসব্যাপী নিউ জিল্যান্ড সফরে তিন ম্যাচের একটি ওয়ানডে সিরিজ খেলার পাশাপাশি তিনম্যাচের একটি টেস্ট সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ।

বুধবার প্রথম ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে দল দুটি। ১৬ ফেব্রুয়ারি ক্রাইস্টচার্চে হবে দ্বিতীয় ওয়ানডে ও ২০ ফেব্রুয়ারি হবে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে।

২৮ ফেব্রুয়ারি হ্যামিল্টনে শুরু হবে তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত